চুয়াডাঙ্গার অপ্রতিরোধ্য প্রেমের কবি ময়নুল হাসানের দ্বিতীয় মৃত্যুবার্ষিকী আজ

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গার অপ্রতিরোধ্য প্রেমের কবি ময়নুল হাসানের আজ দ্বিতীয় মৃত্যুবার্ষিকী। চুয়াডাঙ্গা জেলা লেখক সংঘের সাধারণ সম্পাদক কবি ময়নুল হাসান ২০১৯ সালের ৭ জানুয়ারি ঢাকায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।

আলমডাঙ্গা উপজেলার জেহালা গ্রামের শামসুল হক ও বেগম রিজিয়া খাতুনের ছেলে কবি ময়নুল হাসান ছিলেন সোনালী ব্যাংক চুয়াডাঙ্গা শাখার অফিসার। ব্যক্তি জীবনে ছিলেন একমাত্র কন্যাসন্তানের জনক। তার মেয়ে কবি ও গল্পকার মোহনা হাসান প্রেমা। ১৯৬২ সালের ২ ফেব্রুয়ারি জন্মগ্রহণ করেন কবি ময়নুল হাসান। চার দশকের বেশি সময় ধরে নিরলসভাবে কবিতা লিখেছিলেন তিনি। তার কবিতার প্রধান উপজীব্য প্রেম। পরিচিতজনেরা তাকে অপ্রতিরোধ্য প্রেমের কবি হিসেবে অভিহিত করতেন। কবিতা চর্চার পাশাপাশি তিনি ছিলেন একজন দক্ষ সাহিত্য সংগঠক। তারই নেতৃত্বে চুয়াডাঙ্গা জেলা লেখক সংঘ জেলার শক্তিশালী সাহিত্য সংগঠন হিসেবে পরিচিতি লাভ করেছে। ২০১১ সালে বৃহত্তর আঙ্গিকে প্রতিষ্ঠিত চুয়াডাঙ্গা জেলা লেখক সংঘের প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক ছিলেন কবি ময়নুল হাসান।

দেশের খ্যাতিমান অনেক লেখকের সঙ্গে কবি ময়নুল হাসানের নিগুঢ় সম্পর্ক ছিলো। সব্যসাচী লেখক সৈয়দ শামসুল হক নিজে খুব স্নেহ করতেন তাকে। ময়নুল হাসানের কবিতার খুব প্রশংসা করতেন সৈয়দ হক। কবি সৈয়দ শামসুল হক ২০১২ সালে বেশ কয়েকদিন কাটিয়েছিলেন কবি ময়নুল হাসানের চুয়াডাঙ্গাস্থ বাসাবাড়িতে। কবি ময়নুল হাসানের সম্পাদনায় সাহিত্য পত্রিকা হিল্লোল, সন্দীপন, উদ্দীপন, সৌরভ, জয়ন্তী ও প্রতিধ্বনি প্রকাশিত হয়েছে। কবির লেখা দুটি কাব্যগ্রন্থ প্রকাশিত হয়েছে। ‘মাধবী ঠোঁটে ঠোঁট রেখে’ তার প্রথম কাব্যগ্রন্থ প্রকাশ করে প্রকাশনা প্রতিষ্ঠান শুদ্ধস্বর। প্রকাশিত হয় ২০১৩ সালের অমর একুশে বইমেলায়। দ্বিতীয় কাব্যগ্রন্থ ‘যদি ভালোবাসা দাও’ প্রকাশ করে প্রকাশনা প্রতিষ্ঠান অনন্যা। এটি পরের বছর ২০১৪ সালের অমর একুশে বইমেলায় প্রকাশ পায়। কবি ময়নুল হাসান মৃত্যুর কয়েকদিন আগে আকস্মিক অসুস্থ হয়ে পড়েন। তাকে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতাল থেকে স্থানান্তর করে ঢাকায় নেন তার একমাত্র জামাই ইঞ্জিনিয়ার ইউনুস আলী শোভন। ঢাকার ধানম-ি গ্রিন লাইফ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় স্ট্রোকে আক্রান্ত হয়ে ২০১৯ সালের ৭ জানুয়ারি ৫৭ বছর বয়সে তিনি না ফেরার দেশে পাড়ি জমান। কবি ময়নুল হাসানের দ্বিতীয় মৃত্যুবার্ষিকীতে চুয়াডাঙ্গা জেলা লেখক সংঘের পক্ষ থেকে তার আত্মার মাগফেরাত ও দোয়া কামনা করা হয়েছে। তারা কবির মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে স্মরণসভা ও সাহিত্যপাঠের কর্মসূচি গ্রহণ করেছে। আগামী ২৯ জানুয়ারি শুক্রবার স্মরণসভা, দোয়া মাহফিল ও সাহিত্য পাঠের আয়োজন করেছে জেলা লেখক সংঘ। বিষয়টি জানিয়েছেন জেলা লেখক সংঘের সভাপতি ডা. শাহীনূর হায়দার ও সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ। পরবর্তীতে অনুষ্ঠানের তারিখ ও স্থান জানিয়ে দেয়া হবে বলে তারা জানান। এছাড়া কবি ময়নুল হাসানের পরিবারের পক্ষ থেকে তার একমাত্র সন্তান কবি ও কলামিস্ট মোহনা হাসান প্রেমা ও জামাই ইঞ্জিনিয়ার ইউনুস আলী শোভন সবার কাছে দোয়া প্রার্থনা করেছেন।

 

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More