চুয়াডাঙ্গাসহ ২৫ পৌরসভায় আওয়ামী লীগের প্রার্থী চূড়ান্ত আজ

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে হবে মনোনয়ন বোর্ডের বৈঠক
স্টাফ রিপোর্টার: আগামী ২৮ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিতব্য চুয়াডাঙ্গাসহ ২৫ পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী ১০৫ জন। চুয়াডাঙ্গা পৌর নির্বাচনে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন পেতে আবেদন করেছেন জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্মসাধারণ সম্পাদক সাবেক মেয়র রিয়াজুল ইসলাম জোয়ার্দ্দার টোটন, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের আহ্বায়ক পৌর মেয়র ওবায়দুর রহমান চৌধুরী জিপু, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি শরীফ হোসেন দুদু ও কাউন্সিলর জাহাঙ্গীর আলম মালিক খোকন। গতকাল শুক্রবার নেতৃকর্মীদের সাথে নিয়ে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আওয়ামী লীগের স্থানীয় সরকার মনোনয়ন বোর্ডের কাছ থেকে প্রার্থীগণ মনোনয়ন প্রাপ্তির আবেদন ফরম উঠিয়ে নির্দেশনা অনুযায়ী পূরণ করে জমা দেন।
একক প্রার্থী চূড়ান্ত করতে আজ শনিবার বিকেল সাড়ে ৩টায় গণভবনে আওয়ামী লীগের স্থানীয় সরকার জনপ্রতিনিধি মনোনয়ন বোর্ডের বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। এতে সভাপতিত্ব করবেন আওয়ামী লীগ সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের এমপি বৈঠকে সংশ্লিষ্ট সবাইকে স্বাস্থ্য সুরক্ষা বিধি মেনে যথাসময়ে উপস্থিত থাকার জন্য অনুরোধ জানিয়েছেন। এবার সংশ্লিষ্ট জেলা/উপজেলা/পৌরসভা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক স্বাক্ষরিত রেজুলেশনে প্রস্তাবিত প্রার্থীর বাইরে অন্য কারও কাছে দলীয় মনোনয়নের জন্য আবেদনপত্র বিক্রি করছে না আওয়ামী লীগ। আগামী ২৮ ডিসেম্বর যেসব পৗরসভায় ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে সেগুলো হলো- চুয়াডাঙ্গা সদর, পঞ্চগড় সদর, ঠাকুরগাঁও জেলার পীরগঞ্জ, দিনাজপুরের ফুলবাড়ী, রংপুরের বদরগঞ্জ, কুড়িগ্রাম সদর, রাজশাহীর পুঠিয়া ও কাটাখালী, সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর, পাবনার চাটমোহর, কুষ্টিয়ার খোকসা, খুলনার চালনা, বরগুনার বেতাগী, পটুয়াখালীর কুয়াকাটা, বরিশালের উজিরপুর ও বাকেরগঞ্জ, ময়মনসিংহের গফরগাঁও, নেত্রকোনার মদন, মানিকগঞ্জ সদর, ঢাকার ধামরাই, গাজীপুরের শ্রীপুর, সুনামগঞ্জের দিরাই, মৌলভীবাজারের বড়লেখা, হবিগঞ্জের শায়েস্তাগঞ্জ ও চট্টগ্রামের সীতাকু-। এসব পৌর নির্বাচনে গত চারদিন মনোনয়নের জন্য আবেদনপত্র বিক্রি ও জমাদানের এ কার্যক্রম চলে। গতকাল শুক্রবার ছিলো শেষ দিন। নির্বাচন কমিশন ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী, মনোনয়ন দাখিলের শেষ তারিখ ১ ডিসেম্বর, মনোনয়ন বাছাই ৩ ডিসেম্বর, প্রার্থিতা প্রত্যাহার ১০ ডিসেম্বর এবং ভোটগ্রহণ ২৮ ডিসেম্বর। সব পৌরসভায় ইভিএমে ভোট গ্রহণ করা হবে।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More