চুয়াডাঙ্গা জেলা যুবদলের সদস্য দর্শনার জালাল আর নেই
দর্শনা অফিস: চুয়াডাঙ্গা জেলা যুবদলের সদস্য জালাল উদ্দিন আর নেই। গতকাল শনিবার ভোর ৫টার দিকে হৃদযন্ত্র ক্রীয়া বন্ধ হয়ে ইন্তেকাল করেছেন (ইন্নালিল্লাহে…..রাজেউন। জালাল উদ্দীন (৩৮) দর্শনা ইসলাম বাজারপাড়ার করিম উদ্দিনের ছেলে। তিনি ঢাকার একটি টাইলস ফ্যাক্টারিতে চাকরি করতেন। গত শুক্রবার রাতে অসুস্থ হয়ে পরলে তাকে চিকিৎসার জন্য দ্রুত ভর্তি করা হয় ঢাকার ধানমন্ডি ইবনে সিনহা হাসপাতালে। গতকাল শনিবার ভোরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান জালাল উদ্দিন। গতকাল শনিবার দুপুরে জালালের লাশ আনা হয় দর্শনা ইসলাম বাজারস্থ বাড়িতে। আছর বাদ কেরুজ বাজার মাঠে জানাজা শেষে মোবারকপাড়া গোরস্তানে দাফন করা হয়েছে। জালাল উদ্দীনের মৃত্যুতে শোক জানিয়েছে চুয়াডাঙ্গা জেলা যুবদল। এক বার্তায় জেলা যুবদলের সভাপতি শরিফুর জামান সিজার শোক ও শোকসন্তুপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন।

সরোজগঞ্জ বাজারের সুলতানিয়া হোটেল মালিক বাবলুর ইন্তেকাল
সরোজগঞ্জ প্রতিনিধি: চুয়াডাঙ্গার সরোজগঞ্জ বাজারের সুলতানিয়া হোটেল মালিক রবিউল ইসলাম বাবলু ইন্তেকাল করেছেন (ইন্নালিল্লাহে…..রাজেউন)। গতকাল শনিবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে ঢাকা বারডেম হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি। আজ রোববার সকালে নিজগ্রাম বোয়ালিয়ায় জানাজা শেষে মাদরাসাপাড়া কবরস্থানে দাফন করা হবে বলে পরিবারের পক্ষ থেকে জানানা হয়েছে। রবিউল ইসলাম বাবলু (৪৮) চুয়াডাঙ্গার বোয়ালিয়া গ্রামের মৃত সুলতান আহম্মেদের ছেলে। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, ১ ছেলে ও ১ মেয়েসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। বাবলুর মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করে মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করেছেন সরোজগঞ্জ কমিটির সভাপতি হাজি আব্দুল্লা শেখ। তিনি বলেন, পিতা মারা যাওয়ার পর খুব ছোট থেকে পিতার রেখে যাওয়া ব্যবসা প্রতিষ্ঠানটি নিজ হাতে আগলে রেখেছিলো বাবলু। তার মৃত্যুতে আমরা শোকাহত। তার বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কমনায় সকলের কাছে দোয়া কামনা করছি।

 

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More