আ.লীগকে আন্দোলনের হুমকি দিয়ে ভয় দেখানো যাবে না

জীবননগরের কালায় আওয়ামী লীগের শোক সভায় টগর এমপি

জীবননগর ব্যুরো: জীবননগরের মনোহরপুর ইউনিয়নে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে ৫টার সময় ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের আয়োজনে কালা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়মাঠে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে চুয়াডাঙ্গা-২ আসনের সংসদ সদস্য হাজি মো. আলী আজগার টগর বলেন, আগস্ট মাস আসলেই বাঙালি জাতির হৃদয়ে নেমে আসে শোকের ছায়া। আর স্বাধীনতা বিরোধী বিএনপি-জামায়াত আওয়ামী লীগকে নিশ্চিহ্ন করতে এই মাসটিকে বেছে নেয়। ১৯৭৫ সালে ১৫ আগস্ট বাঙালি জাতির হৃদয়ের স্পন্দন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ তার পরিবারের সকল সদস্যকে নির্মমভাবে হত্যা করে। শুধুমাত্র বঙ্গবন্ধুর দুই কন্যা শেখ হাসিনা ও শেখ রেহেনা দেশের বাইরে অবস্থান করায় প্রাণে বেঁচে যান। এই মাসেই ১৭ আগস্ট স্বাধীনতা বিরোধী শক্তি ষড়যন্ত্র করে একযোগে দেশের ৬৩ জেলায় বোমা হামলা চালিয়েছিল। এরপরই ২১ আগস্ট বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ের সামনে আওয়ামী লীগের জনসভায় গ্রেনেড হামলা চালিয়ে আজকের প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধুর কন্যা শেখ হাসিনাকে হত্যার চেষ্টা করা হয়। বিএনপি নেতারা কথায় কথায় আন্দোলনের হুমকি দেন। আমি স্পষ্টভাবে জানাতে চাই আওয়ামী লীগ জনগণের দল। আন্দোলন মোকাবেলা করতে আওয়ামী লীগ জানে। জনগণকে সঙ্গে নিয়ে বিএনপির আন্দোলনের সমুচিত জবাব দেয়া হবে।

কালা ৫নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি আমিনুল ইসলামের সভাপতিত্বে সভায় এমপি টগর আরও বলেন, আমরা দেখতে পাচ্ছি ইউক্রেন ও রাশিয়া যুদ্ধের প্রভাবে গোটা বিশ্বের অর্থনৈতিক অবস্থা টালমাটাল। এই যুদ্ধের কারণে তেল, গ্যাস, জ্বালানিসহ সব সেক্টরে দাম বৃদ্ধি পেয়েছে। জ্বালানি সংকটে বিদ্যুৎ উৎপাদনে কিছুটা স্থবিরতা আসায় একটু লোডশেডিং হচ্ছে। অথচ বিএনপির নেতারা এই ইস্যুকে প্রাধান্য দিয়ে সাধারণ মানুষকে উসকে দিয়ে সরকার উৎখাতের ষড়যন্ত্র করছে।

বিএনপির ষড়যন্ত্রের জবাব দিয়ে হাজি আলী আজগার টগর এমপি বলেন, বিএনপির নেতারা নিজেরাই হাতে হারিকেন তুলে নিয়েছেন। তাদের নেতা-কর্মীদের বলতে চাই ক্ষমতায় থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদনে আপনারা কি করেছেন; এই দেশের মানুষ তা হাড়ে হাড়ে টের পেয়েছে।

তিনি বলেন, ১৯৯৬ সালে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এসে বিএনপি আমলে উৎপাদিত ১ হাজার ৬০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ পেয়েছিলাম। মাত্র ৫ বছরের আওয়ামী লীগের শাসনামলে এই বিদ্যুৎ উৎপাদন বাড়িয়ে ৪ হাজার ২০০ মেগাওয়াট করা হয়। আবার আওয়ামী লীগ ২০০৮ সালে ক্ষমতায় এসে বিদ্যুৎ পাই ৩ হাজার মেগাওয়াট। তারপর আওয়ামী লীগের সাড়ে ১৩ বছর ক্ষমতায় থেকে ২৬ হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন করে নজির স্থাপন করেছে। আজ আন্তর্জাতিক সংকটে বিদ্যুৎ উৎপাদনে কিছুটা কমে আসায় বিএনপি হারিকেন নিয়ে আন্দোলন গড়ে তুলতে চাই। তিনি বলেন, এদেশের মানুষ এখন সবকিছু বুঝে আওয়ামী লীগকে বারবার নির্বাচিত করেছে। দেশের প্রতি যখন এতো দরদ তখন বিএনপি ক্ষমতায় থেকে এদেশের মানুষকে ঠকিয়ে নিজেদের আখের গুছিয়ে দেশকে তলাবিহীন ঝুড়ি উপাধিতে ভূষিত করেছিল কেন। আগামীতে রাজনৈতিকভাবে সকল ষড়যন্ত্রের দাঁত ভাঙা জবাব দেয়ার হুঁশিয়ার উচ্চারণ করেন।

শোক সভার আলোচনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, জীবননগর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নজরুল ইসলাম, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হাজি হাফিজুর রহমান, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান আয়েশা সুলতানা লাকী, উথলী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল হান্নান, মনোহরপুর ইউপি চেয়ারম্যান সোহরাব হোসেন খাঁন, মনোহরপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি গোলাম রসুল, সাধারণ সম্পাদক আহসান হাবীব বকুল। সভায় ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ ও ওয়ার্ড পর্যায়ের নেতা-কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More