চুয়াডাঙ্গায় তিন স্কুলের সামনে ট্রাফিক পুলিশ মোতায়েনের দাবি 

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গা শহরের প্রধান সড়ক সংলগ্ন তিন বিদ্যালয়ের সামনে ট্রাফিক পুলিশ মোতায়েনের দাবিতে স্মারকলিপি দিয়েছে এনসিটিএফ। দুর্ঘটনা রোধে অন্তত ছুটির সময় সেখানে ট্রাফিক পুলিশ মোতায়েনের দাবি জানান ন্যাশনাল চিলড্রেন টাস্ক ফোর্স চুয়াডাঙ্গা জেলা কমিটির সদস্যরা। এ দাবিতে গতকাল সোমবার বেলা ১১টায় জেলা প্রশাসক বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করা হয়। তাদের স্মারকলিপি গ্রহণ করে দাবি কার্যকরে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়া হবে বলে আশ্বস্ত করেন জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আমিনুল ইসলাম খান।
স্মারকলিপিতে বলা হয়েছে, চুয়াডাঙ্গা জেলা শহরের প্রধান দুইটি সড়ক শহীদ আবুল কাশেম সড়ক এবং শহীদ আলাউল ইসলাম খোকন সড়ক তথা ভি.জে স্কুল বা থানা রোড। এমনকি সড়ক দুটি শহরের সবচেয়ে ব্যস্ততম। এই দুই সড়কের ধারেই রয়েছে ভি.জে সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়, চুয়াডাঙ্গা সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ও কালেক্টরেট স্কুল অ্যান্ড কলেজ। বিদ্যালয়ের সামনে প্রতিনিয়ত ঘটছে ছোটেখাটো দুর্ঘটনা। বিশেষ করে ছুটির সময় দুর্ঘটনার শঙ্কা সবচে বেশি। সম্প্রতি চুয়াডাঙ্গা সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ছুটির সময় মোটরবাইকে আঘাত পান এক শি¶ার্থীর অভিভাবক। এতে তার পায়ে আঘাত লাগে। ওই অভিভাবকের বড় ধরনের ¶তি না হলেও এ অপ্রত্যাশিত ঘটনার দ্বারা প্রতীয়মান হয় যে, বিদ্যালয় ছুটির সময় সড়কে সৃষ্টি হওয়া বিশৃক্সখলার কারণে যেকোনো শি¶ার্থী কিংবা অভিভাবক বড় ধরনের দুর্ঘটনার শিকার হতে পারে। ফলে দুর্ঘটনা রোধে ওই তিন বিদ্যালয়ের সামনে ছুটির সময় অন্তত একজন ট্রাফিক পুলিশ মোতায়েন প্রয়োজন।
স্মারকলিপি প্রদানের সময় উপস্থিত ছিলেন এনসিটিএফ জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল্লাহ সাদিক সৌরভ, চাইল্ড পার্লামেন্ট মেম্বার রাওনাক সামিয়া, নাঈম বীন হাসান, শিশু সাংবাদিক কামরুল ইসলাম অপু, জারিন তাসলিম শিলা, শিশু গবেষক সাদিয়া আফরীন, সাধারণ সদস্য মাহবুব আলম আকাশ এবং আয়েশা সিদ্দিকা স্বর্না।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More