কুষ্টিয়ায় করোনা ও উপসর্গে চার জনের মৃত্যু : শনাক্ত ৪২

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি: কুষ্টিয়ায় করোনা ও উপসর্গ নিয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের করোনা ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় চারজনের মৃত্যু হয়েছে। আগের ২৪ ঘণ্টায় করোনা উপসর্গ নিয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন একজনের মৃত্যু হয়েছিলো। সোমবার সকাল ৯টায় কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের পরিসংখ্যান কর্মকর্তা মো. মেজবাউল আলম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
হাসপাতালে করোনা আক্রান্ত এবং উপসর্গ নিয়ে মৃত্যুর পাশাপাশি রোগী ভর্তির চাপও আগের চেয়ে কিছুটা কমেছে। আক্রান্ত এবং উপসর্গ নিয়ে সোমবার সকাল ৯টা পর্যন্ত ৭০ জন রোগী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এর মধ্যে করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যাই ৫০ জন। আর উপসর্গ নিয়ে ভর্তি রয়েছেন আরো ২০ জন। এদিকে হাসপাতালে করোনা আক্রান্ত চিকিৎসাধীন রোগীর সংখ্যা অব্যাহতভাবে কমতে থাকায় গত তিনদিন ধরে কুষ্টিয়া করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালটিকে আবারও পূর্বের ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে রুপান্তর করা হয়েছে। হাসপাতালে আউটডোর চালুসহ অন্যান্য সকল ধরণের রোগীর চিকিৎসা প্রদান শুরু হয়েছে। কুষ্টিয়া ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. এম এ মোমেন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
এদিকে কুষ্টিয়া পিসিআর ল্যাবে গত ২৪ ঘণ্টায় জেলায় ২৭৩টি নমুনা পরীক্ষার বিপরীতে নতুন করে ৪২ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। শনাক্তের হার ১৫ দশমিক ৩৮ ভাগ। এ পর্যন্ত কুষ্টিয়া জেলায় করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ১৭ হাজার ৮৭৯ জন। এর মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ১৬ হাজার ৪০৭ জন। এখন পর্যন্ত জেলায় করোনা আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেছেন ৭৩৬ জন। নতুন করে শনাক্ত ৪২ জনের মধ্যে কুষ্টিয়া সদরে ২৪ জন, কুমারখালী উপজেলায় ১ জন, দৌলতপুর উপজেলায় ১ জন, ভেড়ামারা উপজেলায় ৯ জন, মিরপুর উপজেলায় ৫ জন এবং খোকসা উপজেলায় ২ জন আক্রান্ত হয়েছেন। বর্তমানে কুষ্টিয়া জেলায় করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ৭৩৬ জন। এর মধ্যে হোম আইসোলেশনে রয়েছেন ৬৭৪ জন। আর হাসপাতালে আইসোলেশনে চিকিৎসাধীন রয়েছেন ৬২ জন।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More