কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালকে করোনা ডেডিকেটেড ঘোষণা

রোগীদের সেবা দিতে গিয়ে হিমশিম পোহাচ্ছেন চিকিৎসক ও নার্সরা
কুষ্টিয়া প্রতিনিধি: করোনা রোগীর চাপ সামাল দিতে ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালকে করোনা ডেডিকেটেড ঘোষণা করা হয়েছে। গতকাল শুক্রবার সকাল ১০টায় হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক আবদুল মোমেন এ তথ্য নিশ্চিত করেন। হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক আবদুল মোমেন বলেন, পরিস্থিতি খারাপ হওয়ায় ২০ জুন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে জেনারেল হাসপাতালকে ডেডিকেটেড হাসপাতাল করার অনুরোধ জানিয়ে একটি চিঠি পাঠানো হয়েছিলো। সেখান থেকে বোই চিঠির কোনো জবাব আসেনি। দুদিন ধরে হাসপাতালে রোগী ভর্তির যে চাপ, তাতে শুক্রবার সকাল থেকে হাসপাতালটিকে করোনা ডেডিকেটেড ঘোষণা করতে হয়েছে। হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক আবদুল মোমেন আরও বলেন, ‘এখন থেকে হাসপাতালে শুধু করোনায় আক্রান্ত রোগীদের ভর্তি নেয়া হবে। প্রসূতি ও নবজাতকদের জন্য স্ক্যান ও গুরুতর রোগীদের জন্য সিসিইউ ওয়ার্ড চালু থাকবে। এ ছাড়া ২৪ ঘণ্টা হাসপাতালে জরুরি সেবা খোলা থাকবে। তবে এ সময় বহির্বিভাগ বন্ধ থাকবে।’ হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা (আরএমও) তাপস কুমার সরকার বলেন, শুক্রবার সকাল পর্যন্ত হাসপাতালের ১৮০ রোগী ভর্তি আছেন। তাদের মধ্যে ১৪২ জন করোনা পজিটিভ। বাকি ৩৮ জন করোনা উপসর্গ নিয়ে ভর্তি হয়েছেন। হাসপাতালের দোতলার সব কটি ওয়ার্ডে ২০০ শয্যা স্থাপন করা হয়েছে। নিচের কয়েকটি ওয়ার্ড প্রস্তুত করা হচ্ছে। করোনা ছাড়া অন্য কোনো চিকিৎসা দেয়া এ মৃহূর্তে সম্ভব হচ্ছে না। রোগীদের সেবা দিতে গিয়ে চিকিৎসক ও নার্সরা হিমশিম পোহাচ্ছেন।
জেলায় গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা অনুপাতে সর্বোচ্চ হার উঠে এসেছে। গত ২৪ ঘণ্টায় ২৬৪টি নমুনা পরীক্ষায় ১১১ জনের শরীরে করোনা পজিটিভি শনাক্ত হয়েছে। শনাক্তের হার ৪৯ দশমিক ৩৩ শতাংশ। এ নিয়ে জেলায় করোনা পজিটিভ রোগীর সংখ্যা ৬ হাজার ৯১৩। জেলায় সাত দিনের লকডাউনের আজ পঞ্চম দিন চলছে। মাঠে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ও প্রশাসন মানুষকে ঘরে রাখতে কাজ করছে। তবে অভিযোগ রয়েছে ঠুনকো অজুহাতে মানুষ বাড়ির বাইরে বের হচ্ছে। জেলার করোনা পরিস্থিতি ভয়াবহ হওয়ার পরও কেউ সেটা মানতে চাচ্ছে না। আইন না মানায় প্রশাসন অভিযান চালিয়ে ৭৬ জন থেকে ১ লাখ ১১ হাজার ৯০০ টাকা জরিমানা আদায় করেছেন।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More