চুয়াডাঙ্গায় বিদিশাকে শুভেচ্ছা জানালেন ডিসি ও এসপি

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গার ফুটবলের রাণী বিদিশাকে শুভেচ্ছা জানালেন চুয়াডাঙ্গার জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আমিনুল ইসলাম খান ও পুলিশ সুপার জাহিদুল ইসলাম। আর্থিক অনুদানসহ অভিনন্দন জানালেন জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আমিনুল ইসলাম খান। গতকাল বুধবার দুপুরে নিজ নিজ কার্যালয়ে ডেকে বিদিশাকে নগদ অর্থ, উপহার ও ফুলেল শুভেচ্ছা জানান জেলার দু-অভিভাবক। এ সময় উপস্থিত ছিলেন বিদিশার ফুটবল কোচ মিলন বিশ্বাস, অধ্যক্ষ মাহাবুল ইসলাম সেলিম ও জেলা ক্রীড়া অফিসার আমানউল্লাহ আহম্মেদ। চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আমিনুল ইসলাম খান বিদিশাকে অভিনন্দন জানিয়ে বলেন, ‘আলমডাঙ্গার মেয়ে ফুটবলকন্যা বিদিশার পাশে আছে চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসন’।

এদিকে পুলিশ সুপার জাহিদুল ইসলাম বলেন, চুয়াডাঙ্গায় যোগদান করার কিছুদিনের মাথায় পুরাতন স্টেডিয়ামে একটি ফুটবল খেলায় প্রথম তার খেলা দেখে মুগ্ধ হয়েছিলাম। তাই সে অনুষ্ঠানে আমাকে যে উপহারটি দেয়া হয়েছিলো সেটি আমি বিদিশাকে দিয়ে দিয়েছিলাম। আজ আমার মনে হচ্ছে সে পুরস্কারটি কাজে লেগেছে। বৃথা যায়নি। আমি আরো তার সাফল্য কামনা করছি। চুয়াডাঙ্গা পুলিশ প্রশাসনও তার পাশে থাকবে।

উল্লেখ্য, বিদিশা আগামী জুলাইয়ে ইউরোপের পর্তুগালে যাচ্ছে ২ মাসের উন্নত ফুটবল প্রশিক্ষণে। সারা বাংলাদেশ থেকে যে ১৬ জন প্রমিলা ফুটবলার পর্তুগালে যাওয়ার সুযোগ লাভ করেছে চুয়াডাঙ্গার বিদিশা রানী বেদ তার মধ্যে একজন।

আলমডাঙ্গা নিবাসী রাজকুমার বেদ এবং শ্রীমতী ডলি রানী বেদ দম্পতির মেয়ে বিদিশা রানী বেদ বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব জাতীয় গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট, বালিকা (অনূর্ধ্ব ১৭)-২০২১ এর প্রতিভাবান ৪০ জন খেলোয়াড়ের বিকেএসপিতে ২ মাসব্যাপী উন্নত প্রশিক্ষণ থেকে পর্তুগালে অধিকতর উন্নত প্রশিক্ষণের জন্য নির্বাচিত ১৬ জন খেলোয়াড়ের মধ্যে জায়গা করে নিয়েছে। তার এমন সাফল্যে আমরা গর্ববোধ করছি। জেলা প্রশাসন তার উত্তরোত্তর সাফল্য কামনা করছি।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More