জীবননগর এখন মাইকিংয়ের শহর!

জীবননগর ব্যুরো: জীবননগর এখন মাইকিঙের শহরে পরিণত হয়েছে। সকাল হতে গভীর রাতাব্দি একই সঙ্গে একাধিক প্রতিষ্ঠানের মাইকিঙের শব্দ দুষণে অতিষ্ঠ এ শহরের মানুষ। শহরবাসী এর পতিকার চেয়ে প্রশাসনিক হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।
শহরের বাসিন্দা আশাবুল হক অভিযোগ করে বললেন, প্রতিদিন সকাল হতে একই সঙ্গে ১০ থেকে ১০টি প্রতিষ্ঠানের পক্ষ হতে বিজ্ঞাপন প্রচারণার জন্য শহরে মাইক বের করা হয়। তাদের মাইকিঙের কোন নিয়মকানুন নেই। নামাজের সময় মাইক বন্ধ রাখা হয় না। ফলে মুসল্লীদের নামাজে মনোযোগের বিঘœ সৃষ্টি হয়। শফিকুল ইসলাম জানালেন, প্রতিদিন সব থেকে বেশি মাইকিং করা হচ্ছে ইল্ট্রেনিক্সের কয়েকটি শো-রুমের পক্ষ হতে। দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে চিকিৎসক ও ডায়াগনষ্টিক সেন্টারের নির্ভূল পরীক্ষার নামে চালনো মাইকিং। তৃতীয় স্থানে রয়েছে পোল্ট্রি মুরগি বিক্রি। চতূর্থ স্থানে রয়েছে মোবাইলের সিম বিক্রির মেলা। ৫ম স্থানে রয়েছে সুখবর দিয়ে বিশাল ষাড় গরু ও পাহাড়িয়া মোষ জবাই করে মাংস বিক্রির মাইকিং। ৬ষ্ঠ স্থানে রয়েছে ছাগল ও হাঁসসহ অন্যান্য জিনিসপত্র হারোনোর মাইকিং। এর পর রয়েছে আরও নানান বিষয়ের ওপর মাইকিং। প্রতিদিন গড়ে ১০ থেকে ১২টি সংস্থার মাইক এক সাথে বের করায় শহর জুড়ে মারাত্মক শব্দ দুষণ হচ্ছে। এর ফলে অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে শহরবাসী। ২০১৭ সালের গোড়ার দিকে মাইকিঙের ওপর বিধি নিষেধ অরোপ করে তৎকালীন উপজেলা নির্বাহী অফিসারের পক্ষ হতে প্রচারণা চালানো হয়। এ প্রচারণার পর বেশ কিছুদিন মাইকের অত্যাচার বন্ধ ছিলো কিন্তু সম্প্রতি শহরে এতোটাই মাইকিঙের অত্যাচার বৃদ্ধি পেয়েছে তাতে মানুষজন চরমভাবে অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে। বিশেষ করে বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের লেখাপড়ায় বিঘœ সৃষ্টিসহ তাদের কান ঝালাফালার উপক্রম। এ অবস্থায় দাবী উঠেছে শব্দ দূষণকারীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More