দৌলতপুরে একাধিক মামলার আসামিকে গলা কেটে হত্যা

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি: কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে রুহুল সর্দার (৪০) নামের এক ব্যক্তির গলাকাটা মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার উপজেলার ফিলিপনগর ইউনিয়নের চরসাদিপুর গ্রামের পিএসএস মাধ্যমিক বিদ্যালয় সংলগ্ন মাঠ থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়। দৌলতপুর থানা পুলিশের ওসি এস.এম. জাবিদ হাসান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। রুহুল সর্দ্দার চরসাদিপুর গ্রামের মুনতাজ সর্দারের ছেলে এবং স্থানীয় আওয়ামী লীগের কর্মী। তার বিরুদ্ধে ধর্ষণসহ একাধিক মামলা রয়েছে।
পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার বিকেলের দিকে চরসাদিপুর গ্রামের পিএসএস মাধ্যমিক বিদ্যালয় সংলগ্ন মাঠে রুহুলের গলাকাটা মরদেহ দেখতে পায় স্থানীয়রা। পরে বিষয়টি জানাজানি হলে দৌলতপুর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। মরদেহ উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হয়েছে। রুহুলের মরদেহের পাশে রক্ত ও শরীরের বিভিন্ন জায়গায় আঘাতের চিহ্ন রয়েছে বলে জানিয়েছে স্থানীয়রা। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, পূর্ব বিরোধের জের ধরেই রুহুলকে হত্যা করা হয়েছে। রুহুল মাদক ও অস্ত্রকারবারীসহ নানা সন্ত্রাসী কর্মকান্ডে জড়িত ছিলেন।
দৌলতপুর থানার ওসি এসএম জাবিদ হাসান বলেন, রুহুলের বিরুদ্ধে ধর্ষণসহ একাধিক মামলা রয়েছে। কে বা কারা তাকে গলা কেটে হত্যা করেছে তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। অপরাধীদের কাউকে ছাড় দেয়া হবে না। ওই এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। এখনো মামলা হয়নি ও কাউকে আটক করা যায়নি। মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More