বহিরাগত বখাটেদের হামলায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ১২ শিক্ষার্থী আহত

গাংনীর বামন্দী নিশিপুর স্কুল অ্যান্ড কলেজে বিদায় অনুষ্ঠানে ঢুকে ছাত্রীদের উত্ত্যক্তের প্রতিবাদ

গাংনী প্রতিনিধি: মেহেরপুরে গাংনীতে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অবস্থানরত ১২ শিক্ষার্থীকে পিটিয়ে আহত করেছে বখাটেরা। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে গাংনী উপজেলার বামন্দী নিশিপুর স্কুল অ্যান্ড কলেজের এইচএসসি পরিক্ষার্থীদের বিদায় অনুষ্ঠানে এ হামলার ঘটনা ঘটে। আহত শিক্ষার্থীরা হলেন-বামন্দী নিশিপুর স্কুল অ্যান্ড কলেজের ২০২২ সালের এইচএসসি পরিক্ষার্থী মোস্তাক, সাব্বির, নাহিদ, শিশির, সায়েম, সাজিদ, মাহফুজ, আনোন, ইলমান, তানভীর, ফরহাদ ও মুন্নি। এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন বামন্দী নিশিপুর স্কুল অ্যান্ড কলেজের সভাপতি মাসুম আহমেদ। আহত শিক্ষার্থী সাব্বির আহমেদ জানান, আমাদের ২০২২ সালের এইচএসসি পরিক্ষার্থীদের বিদায় অনুষ্ঠান চলছিলো। এমন সময় স্থানীয় বহিরাগত বখাটে ছেলেরা আমাদের বান্ধবীদের উত্ত্যাক্ত করছিলো। আমরা বন্ধুরা মিলে তার প্রতিবাদ করি। আমাদের অনুষ্ঠান শেষে হঠাৎ রড, বাশের লাঠি, কাঠের বাটাম হাতে করে ২০-২৫ জন বখাটে ছেলে এসে প্রথমে আমাকে মারধর শুরু করে। পরে আমার আরো বন্ধুরা এগিয়ে আসলে পর্যায়ক্রমে ১২ জনকে মেরে যখম করে। হামলা শেষে তারা মটরসাইকেলযোগে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ছেড়ে পালিয়ে যায়। পরে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শনে আসে। আহত আরেক শিক্ষার্থী শিশির আহমেদ বলেন, যারা আমাদের উপর আক্রমন চালিয়েছে। তাদের হাতে রড, স্টিলের পাইপ, কাঠের বাটাম ছিলো। তাদের আক্রমনের ফলে আমাদের বন্ধুদের দুটি মোবাইল ফোন, দুটি ডিএসএলআর ক্যামেরা,  মোবাইল স্ট্যান্ড, দশটি বেঞ্চ, বিশটি চেয়ার, টেবিল ভাঙচুর করে। আমরা আমাদের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অনুষ্ঠান করছিলাম। অথচ সেখানেই আমাদের উপর হামলা করা হলো। তাহলে আমরা নিরাপদ কোথায়? আমরা এর বিচার চাই। শুষ্ঠু বিচার না হলে আমরা মানব বন্ধন করবো। আহত আরেক পরীক্ষার্থী মুন্নি আক্তার জানান, আমাদের বিদায় অনুষ্ঠান শেষে বন্ধু-বান্ধবী মিলে আমাদের বিদ্যালয়ের ৪র্থ তালায় হলরুমে মতবিনিময় করছিলাম। এমন সময় ঘরের বাহির থেকে বেশ কিছু ছেলে আমাদের বান্ধবীদের বাজে টোন করছিলো। আমাদের বন্ধুরা এর প্রতিবাদ করতে গেলে ২০-২৫ ছেলে এসে আমাদের উপর হামলা করে। বামন্দী নিশিপুর স্কুল অ্যান্ড কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ সিরাজুল ইসলাম জানান, এইসএসসি পরিক্ষার্থীদের সাথে কয়েকজন বহিরাগত ছেলেদের মধ্যে কথাকাটা কাটির ঘটনা ঘটে। আমি তাদের ডেকে বিষয়টি সামাধান করে বাসায় চলে আসার পরে ঘটনাটি ঘটেছে। আমি এ ঘটনার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছি। বামন্দী নিশিপুর স্কুল অ্যান্ড কলেজের সভাপতি মাসুম আহমেদ জানান, বিদ্যালয়ের ২০২২ এর এইচএসসি ব্যাচের বিদায় অনুষ্ঠান শেষ করে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ছুটি দিয়ে শিক্ষকরা শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ত্যাগ করে চলে যাওয়ার পরে বেশ কিছু বহিরাগত বখাটে ছেলে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ঢুকে শিক্ষার্থীদের উপর হামলা চালিয়ে তাদের যখম করেছে। আমি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে প্রশাসনের কাছে অনুরোধ জানাচ্ছি হামলাকারি বখাটেদের আইনের আওতায় নিয়ে এসে দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি দেয়া হোক।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More