স্বামীকে হত্যার অভিযোগে স্ত্রী রোজিনা গ্রেফতার

মেহেরপুরের গাংনীতে ইট দিয়ে স্বামীকে পাল্টা আঘাত : অবশেষে মৃত্যু

গাংনী প্রতিনিধি: মেহেরপুর গাংনী উপজেলার দেবীপুর গ্রামে স্বামীকে নির্যাতন করে মুখে বিষ ঢেলে দিয়ে হত্যার অভিযোগে স্ত্রী রোজিনা খাতুনকে (২৪) গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গত বুধবার গভীর রাতে গাংনী হাসপাতাল বাজার এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করে গাংনী থানা পুলিশের একটি দল। গ্রেফতার রোজিনা খাতুন গাংনী উপজেলার দেবীপুর গ্রামের আতাহার আলীর মেয়ে।
গত মঙ্গলবার রাতে কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রোজিনার স্বামী সাইফুল ইসলাম (২৭) মারা যান। স্ত্রী ও তার পরিবারের লোকজন তাকে পিটিয়ে মুখে বিষ ঢেলে হত্যা করেছে এমন অভিযোগে গাংনী থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন নিহতের ভাই শরিফুল ইসলাম। ওই মামলার প্রধান আসামি হিসেবে রোজিনাকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানান মামলা তদন্তকারী কর্মকর্তা।
মামলা তদন্তকারী কর্মকর্তা গাংনী উপজেলার একাধিক হত্যা মামলার রহস্য উন্মোচনকারী গাংনী থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) সাজেদুল ইসলাম জানান, সাইফুল হত্যকা-ের মামলা দায়েরের পর তদন্তের জন্য আমাকে দায়িত্ব দেয়া হয়। তখন থেকেই আসামি গ্রেফতারের চেষ্টা করছিলাম। বিভিন্ন কৌশল খাটিয়ে শেষ পর্যন্ত বুধবার গভীর রাতে প্রধান আসামি নিহতের স্ত্রী রোজিনাকে হাসপাতাল বাজার থেকে গ্রেফতার করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সেদিনের রাতের ঘটনার বিষয়ে পুলিশের কাছে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য দিয়েছে রোজিনা। মামলাটি সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ তদন্তের স্বার্থে প্রধান আসামিকে অধিকতর জিজ্ঞাবাদের জন্য ৫ দিনের রিমান্ড আবেদনসহ তাকে বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।
অভিযোগে জানা গেছে, গত সোমবার (৮ মার্চ) রাতে পারিবারিক কলহের জের ধরে দেবীপুর গ্রামে শ^শুরবাড়িতে সাইফুল ইসলাম তার স্ত্রীকে ক্ষুর দিয়ে গলা কেটে হত্যার চেষ্টা চালায়। আত্মরক্ষার চেষ্টা চালালে ক্ষুরের পোচ লাগে রোজিনার শরীরের বিভিন্ন স্থানে। স্বামীর হাত থেকে রক্ষা পেতে রোজিনা ইট দিয়ে তার মাথা ফাটিয়ে দেয়। পরিবারের লোকজন টের পেয়ে রোজিনাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে। তারা কয়েকজন মিলে সাইফুলের ওপর আক্রমণ করে। উপুর্যপুরি নির্যাতনে সাইফুল গুরুতর আহত হলেও তার চিকিৎসা না দিয়ে একটি গাছের সাথে বেঁধে রাখে। শুধু তাই নয়, মারধরের পাশাপাশি সাইফুলকে জোরপূর্বক কীটনাশক মুখে ঢেলে দেয়া হয় বলে অভিযোগ করেন সাইফুলের পিতা।
সাইফুলের পিতা ভাদু ম-ল জানান, সাইফুলকে গাছে বেঁধে মারধর ও মুখে কীটনাশক ঢেলে দেয়ার সংবাদ পেয়ে বামন্দী ক্যাম্প পুলিশের একটি টিম সাইফুলকে উদ্ধার করে গাংনী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রেরণ করে। তার অবস্থার অবনতি হওয়ায় কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করলে গভীর রাতে সাইফুলের মৃত্যু ঘটে।
নিহত স্বামী ও আহত স্ত্রীর ঘনিষ্টজনদের সূত্রে জানা গেছে, স্বামী সাইফুল ইসলাম মাদকসেবী। সে বিভিন্ন সময়ে স্ত্রীকে অত্যাচার করতো। অপরদিকে রোজিনার বিরুদ্ধেও রয়েছে পরকীয়ার অভিযোগ। ২০২০ সালের প্রথমে স্ত্রী রোজিনা খাতুন সাইফুলকে তালাক দিয়ে বাপের বাড়িতে বসবাস করছিলো। আট মাস আগে রোজিনার ঘরের সিঁদ কেটে ঘরে ঢুকে রোজিনাকে মারধর করে ও তার বাড়িতে নিয়ে আসার চেষ্টা করে। টের পেয়ে গ্রামের লোকজন সালিস করে দু’জনকে আবারও বিয়ে দিয়ে দেয় এবং রোজিনার বাবার বাড়িতে থাকার বন্দোবস্ত করেন।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More