কে কে নির্বাচিত হবেন চেয়ারম্যান-মেম্বার? চলছে হিসেব-নিকেশ

দামুড়হুদার নতিপোতা ও নাটুদহ ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান-মেম্বার পদপ্রার্থীদের গণসংযোগ শুরু

জহির রায়হান সোহাগ: আগামী ১০ অক্টোবর অনুষ্ঠিত হবে দামুড়হুদার নতিপোতা ও নাটুদহ ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন। এরই মধ্যে ভোটের মাঠের নানা সমীকরণ নিয়ে নির্বাচনী এলাকায় প্রার্থীদের সমর্থক ও সাধারণ ভোটারদের মাঝে চলছে নানা হিসাব-নিকাশ। হাট-বাজার, চায়ের দোকানে এনিয়ে চলছে নানা আলোচনা-সমালোচনা। এদিকে, নির্বাচনের আর কয়েকদিন বাকী থাকায় বসে নেই চেয়ারম্যান ও মেম্বার প্রার্থীরা। উন্নয়নের আশ্বাস দিয়ে ভোটারদের দ্বারে দ্বারে ঘুরছেন তারা। করছেন গণসংযোগ, মোটরসাইকেল শোডাউন। চাচ্ছেন ভোট ও দোয়া। করোনাভাইরাস মহামারীর কারণে স্থগিত হওয়ার পর গেলো ১৩ সেপ্টেম্বর ওই দুটি ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা করে গণ বিজ্ঞপ্তি জারি করেন রিটার্নিং অফিসার ও আলমডাঙ্গা উপজেলা নির্বাচন অফিসার এমএজি মোস্তফা ফেরদৌস। তবে, এবার সকাল ৯টা থেকে শুরু হয়ে ভোট গ্রহণ চলবে বিকেল ৫টা পর্যন্ত বলে জানিয়েছে দামুড়হুদা উপজেলা নির্বাচন অফিস। ভোটের নতুন তারিখ ঘোষণা করার পর একটু নড়েচড়ে বসেছেন প্রার্থীরা।

নতিপোতা ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন ৫ জন প্রার্থী। এদের মধ্যে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী আজিজুল হক নৌকা প্রতীক, বিএনপি মনোনিত প্রার্থী মনিরুজ্জামান মনির ধানের শীষ প্রতীক, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ মনোনীত প্রার্থী মোশারফ হোসেন হাতপাখা প্রতীক, স্বতন্ত্র প্রার্থী আওয়ামী লীগ নেতা রবিউল হাসান মোটরসাইকেল প্রতীক ও ইয়ামিন আলী প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন আনারস প্রতীক নিয়ে।

এ ইউনিয়নের ১ নং সংরক্ষিত ওয়ার্ডে ৫ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন। এদের মধ্যে পোতারপাড়ার মুসলিমা খাতুন (সূর্যমুখী ফুল), একই গ্রামের কাকুলী খাতুন (মাইক), ভগিরথপুর গ্রামের আঞ্জুমান আক্তার (বক), একই গ্রামের মনিকা খাতুন (হেলিকপ্টার) এবং ছুটিপুর গ্রামের নাছরিন সুলতানা (তালগাছ) প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন। ২নং ওয়ার্ডে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন ৩ প্রার্থী। এদের মধ্যে নতিপোতা গ্রামের কাকলি খাতুন বক প্রতীক, কালিয়াবকরী গ্রামের মনোয়ারা খাতুন সূর্যমুখী ফুল প্রতীক এবং একই গ্রামের শেফালী খাতুন মাইক প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন। ৩নং ওয়ার্ডে প্রতিদ্বন্দ্বী ৩ প্রার্থীর মধ্যে হোগলডাঙ্গা গ্রামের ইয়াছমিন আরা (মাইক), একই গ্রামের হালিমা খাতুন (সূর্যমুখী ফুল) এবং বেড়বাড়ী গ্রামের রওশনারা বেগম প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন বক প্রতীক নিয়ে।

১ নং সাধারণ ওয়ার্ডে প্রতিদ্বন্দীতা করছেন ৪ জন প্রার্থী। এ ওয়ার্ডে ছুটিপুর গ্রামের মোখলেছুর রহমান (ভ্যানগাড়ি), একই গ্রামের মিজানুর রহমান (টিউবওয়েল), বদরুল আলম (তালা) এবং মিজানুর রহমান (ফুটবল) প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন। ২নং সাধারণ ওয়ার্ডে প্রতিদ্বন্দ্বী ২ প্রার্থীর মধ্যে পোতারপাড়া গ্রামের আল-মামুন (টিউবওয়েল) এবং আক্তারুজ্জামান মোরগ প্রতীক নিয়ে লড়ছেন। ৩নং সাধারণ ওয়ার্ডে প্রতিদ্বন্দী ৩ প্রার্থীর মধ্যে ভগিরথপুর গ্রামের আকতার শেখ (ফুটবল), একই গ্রামের আব্দুল মান্নান (টর্চ লাইট) এবং বিল্লাল হোসেন (মোরগ) প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন। ৪নং সাধারণ ওয়ার্ডে প্রতিদ্বন্দ্বী ২ প্রার্থীর মধ্যে নতিপোতা গ্রামের মতিয়ার রহমান মতি ফুটবল প্রতীক ও লোকমান হাকিম লড়ছেন মোরক প্রতীক নিয়ে। ৫ নং ওয়ার্ডে প্রতিদ্বন্দ্বী ৩ প্রার্থীর মধ্যে কালিয়াবকরী গ্রামের জাহাঙ্গীর আলম (ভ্যানগাড়ি), একই গ্রামের মামুন অর রশিদ মামুন (ফুটবল) এবং পিজার আলী প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন মোরগ প্রতীক নিয়ে। ৬নং ওয়ার্ডে প্রতিদ্বন্দ্বী ২ প্রার্থীর মধ্যে রুদ্রপুর গ্রামের বুরহান উদ্দিন ফুটবল এবং পিজির উদ্দীন মোরগ প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন। ৭নং ওয়ার্ডে প্রতিদ্বন্দ্বী ৩ প্রার্থীর মধ্যে বেড়বাড়ী গ্রামের সেলিম উদ্দিন (টিউবওয়েল), একই গ্রামের লিয়াকত আলী (ভ্যানগাড়ি) এবং হেমায়েতপুর গ্রামের শওকত আলী (ফুটবল প্রতীক) নিয়ে লড়ছেন। ৮ নং ওয়ার্ডে প্রতিদ্বন্দ্বী ২ প্রার্থীর মধ্যে হোগলডাঙ্গা গ্রামের মফিজুর রহমান ফুটবল প্রতীক এবং হাফিজুর রহমান লড়ছেন মোরগ প্রতীক নিয়ে। ৯নং ওয়ার্ডে প্রতিদ্বন্দ্বী ৬ প্রার্থীর মধ্যে নাসির হোসেন ফুটবল প্রতীক, এরশাদ আলী বৈদ্যুতিক পাখা প্রতীক, তুহিন হোসেন মোরগ প্রতীক, শফিকুল ইসলাম ভ্যানগাড়ি প্রতীক, নজরুল ইসলাম টিউবওয়েল প্রতীক এবং আশাদুল হক তালা প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন।

এদিকে, নাটুদহ ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন ৬ প্রার্থী। আ.লীগ মনোনীত প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম শফি নৌকা প্রতীক, বিএনপি মনোনীত প্রার্থী আমির হোসেন মাস্টার ধানের শীষ প্রতীক, স্বতন্ত্র প্রার্থী আওয়ামী লীগ নেতা ইয়াচনবী অটোরিক্সা প্রতীক, আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুল হালিম আনারস প্রতীক, বিএনপি নেতা ফজলুল হক মোটরসাইকেল প্রতীক ও আমিনুল ইসলাম মোক্তা টেবিল ফ্যান প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন।

এ ইউনিয়নে সংরক্ষিত ১নং ওয়ার্ডে প্রতিদ্বন্দ্বী ২ প্রার্থীর মধ্যে জগন্নাথপুর গ্রামের রিজিয়া খাতুন মাইক প্রতীক এবং নারগিছ আক্তার বক প্রতীক, ২নং ওয়ার্ডে প্রতিদ্বন্দ্বী ৫ প্রার্থীর মধ্যে চারুলিয়া গ্রামের ইসমোতারা খাতুন তালগাছ প্রতীক, একই গ্রামের আরজুমান আরা খাতুন কলম প্রতীক, সুমিতা খাতুন মাইক প্রতীক, চন্দ্রবাস গ্রামের বেলী বেগম হেলিকপ্টার প্রতীক এবং আদুরী খাতুন সূর্যমুখী ফুল প্রতীক, ৩নং ওয়ার্ডে প্রতিদ্বন্দ্বী ৫ প্রার্থীর মধ্যে চন্দ্রবাস গ্রামের কহিনুর খাতুন তালগাছ প্রতীক, একই গ্রামের বিউটি খাতুন হেলিকপ্টার প্রতীক, সরিফা খাতুন সূর্যমুখী ফুল প্রতীক, লাখী খাতুন বক এবং কুনিয়া গ্রামের জেসমিনয়ারা মাইক প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন।

নাটুদহ ইউনিয়নে ১নং সাধারণ ওয়ার্ডে প্রতিদ্বন্দ্বী ৪ প্রার্থীর মধ্যে জগন্নাথপুর গ্রামের মনিরুল ইসলাম মোরগ প্রতীক, একই গ্রামের এরশাদ আলী টিউবওয়েল প্রতীক, আব্দুল কুদ্দুস ভ্যানগাড়ি প্রতীক এবং হাবিবুর রহমান টর্চলাইট প্রতীক নিয়ে লড়ছেন। ২নং সাধারণ ওয়ার্ডে প্রতিদ্বন্দ্বী ৫ প্রার্থীর মধ্যে জগন্নাথপুর গ্রামের জাহাঙ্গীর হোসেন মোরগ প্রতীক, একই গ্রামের আত্তাব আলী বৈদ্যুতিক পাখা প্রতীক, শাহিন হোসেন টিউবওয়েল প্রতীক, আনিছুর রহমান ফুটবল প্রতীক এবং শুকুর আলী শেখ ভ্যানগাড়ি প্রতীক নিয়ে লড়ছেন। ৩নং সাধারণ ওয়ার্ডে প্রতিদ্বন্দ্বী ৩ প্রার্থীর মধ্যে বোয়ালমারী গ্রামের জামসেদ আলী টিউবওয়েল প্রতীক, একই গ্রামের ছানারুল ইসলাম ভ্যানগাড়ি প্রতীক এবং আমজাদ হোসেন মোরগ প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন। ৪নং সাধারণ ওয়ার্ডে প্রতিদ্বন্দ্বী ৩ প্রার্থীর মধ্যে চারুলিয়া গ্রামের সেলিম খান টিউবওয়েল, একই গ্রামের শাহ আলম  মোরগ প্রতীক ও জিনারুল ইসলাম ফুটবল প্রতীক নিয়ে লড়ছেন। ৫নং সাধারণ ওয়ার্ডে প্রতিদ্বন্দ্বী ৩ প্রার্থীর মধ্যে চারুলিয়া গ্রামের মনিরুল ইসলাম মোরগ প্রতীক, একই গ্রামের জসিম উদ্দীন খাঁন ফুটবল এবং জহির উদ্দীন খান প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন ভ্যানগাড়ি প্রতীক নিয়ে। ৬নং সাধারণ ওয়ার্ডে প্রতিদ্বন্দ্বী ৪ প্রার্থীর মধ্যে চন্দ্রবাস গ্রামের আব্দুল হালিম ফুটবল প্রতীক, একই গ্রামের মুনছুর আলী মোরগ প্রতীক, কেরামত আলী তালা প্রতীক ও বাইজিদ হোসেন লড়ছেন ভ্যানগাড়ি প্রতীক নিয়ে। ৭নং সাধারণ ওয়ার্ডে প্রতিদ্বন্দ্বী ২ প্রার্থীর মধ্যে চন্দ্রবাস গ্রামের মোশারফ তরফদার মোরগ ও খলিলুর রহমান ভ্যানগাড়ি প্রতীক নিয়ে লড়ছেন। ৮নং সাধারণ ওয়ার্ডে প্রতিদ্বন্দ্বী ৩ প্রার্থীর মধ্যে ছাতিয়ানতলার সাখাওয়াত হোসেন ফুটবল প্রতীক, একই গ্রামের জবেদ আলী তালা প্রতীক এবং আহম্মদ আলী প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন টিউবওয়েল প্রতীক নিয়ে। ৯ নং সাধারণ ওয়ার্ডে প্রতিদ্বন্দ্বী ২ প্রার্থীর মধ্যে কুনিয়া গ্রামের বশির আহম্মদ মোরগ প্রতীক ও জালাল উদ্দীন ফুটবল প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন। এখন, কারা নির্বাচিত হবেন চেয়ারম্যান-মেম্বার? সেই অপেক্ষায় দিন গুনছেন ভোটাররা।

উল্লেখ্য, গত ২৯ মার্চ ভোট গ্রহণের দিন ধার্য থাকলেও ভোটের এক সপ্তাহ আগে করোনাভাইরাস পরিস্থিতির কারণে নির্বাচন স্থগিত করে নির্বাচন কমিশন।

 

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More