বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের রেকর্ড জয় পেলো বাংলাদেশ

স্টাফ রিপোর্টার: বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের ম্যাচে রেকর্ড ৩২২ রান করে সর্বোচ্চ ২৭০ রানের জয় পেয়েছে বাংলাদেশ নারী ক্রিকেট দল। দেশের ক্রিকেটে এটাই সর্বোচ্চ রানের ব্যবধানে জয়। আন্তর্জাতিক নারী ক্রিকেটে এর আগে পাকিস্তানের বিপক্ষে সর্বোচ্চ ৪০৮ রানের জয় পেয়েছে নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট দল। ১৯৯৭ সালে ৪৫৫ রান করে পাকিস্তানকে মাত্র ৪৭ রানে গুঁড়িয়ে দেয় নিউজিল্যান্ড। মঙ্গলবার জিম্বাবুয়ের সানরাইজ স্পোর্টস ক্লাব মাঠে বিশ্বকাপ বাছাই পর্বের ম্যাচে শারমিন আক্তারের অনবদ্য সেঞ্চুরিতে ৫ উইকেটে ৩২২ রান করে বাংলাদেশ। বিশাল টার্গেট তাড়া করতে নেমে নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারিয়ে ৩০.৩ ওভারে ৫২ রানে অলআউট হয় যুক্তরাষ্ট্র নারী ক্রিকেট দল। টস হেরে প্রথমে ব্যাট করে বাংলাদেশ। প্রথম ম্যাচে গ্রুপের শক্তিশালী দল পাকিস্তানকে ৩ উইকেটে হারিয়ে বিশ্বকাপ মিশন শুরু করে বাংলাদেশ। মঙ্গলবার দ্বিতীয় ম্যাচে আগে ব্যাটিংয়ে নেমে উড়ন্ত সূচনা করে বাংলাদেশ। উদ্বোধনীতে ১৬.১ ওভারে মুরশিদা খাতুনকে সঙ্গে নিয়ে ৯৬ রানের জুটি গড়েন শারমিন আক্তার। ৫৬ বলে ৫টি চারের সাহায্যে ৪৭ রান করে ফেরেন মুরশিদা। এরপর নিগার সুলতানাকে সঙ্গে নিয়ে ৪৮ রানের জুটি গড়েন শারমিন। মাত্র ২৬ বলে ৫টি চারের সাহায্যে ৩৩ রান করে ফেরেন নিগার সুলতানা। তৃতীয় উইকেটে ফারজানা হককে সঙ্গে নিয়ে ১৩৭ রানের জুটি গড়েন শারমিন। ৪৪.১ ওভারে ২৮১ রানে ৬২ বলে ৬৭ রান করে ফেরেন ফারজানা। মাত্র ৪ ও ২ রান করে ফেরেন রুমান আহমেদ ও রিতু। ইনিংসের একেবারে শেষদিকে নেমে ১০ বলে ২টি চারের সাহায্যে ১৭ রান করেন লতা ম-ল। শুরুতে ব্যাটিংয়ে নেমে ইনিংস শেষ করেই সাজঘরে ফেরেন শারমিন। লম্বা সময় ধরে ব্যাটিং করে ওয়ানডে ক্যারিয়ারে প্রথম সেঞ্চুরি তুলে নেন তিনি। তার ১৩০ রানের ইনিংসটি ১৪১ বলে ১১টি চারে সাজানো।

 

টেস্ট খেলতে চট্টগ্রামে বাংলাদেশ-পাকিস্তান ক্রিকেট দল
স্টাফ রিপোর্টার: দুই ম্যাচ টেস্ট সিরিজের প্রথম টেস্ট খেলতে চট্টগ্রাম পৌঁছেছে বাংলাদেশ এবং পাকিস্তান ক্রিকেট দল। মঙ্গলবার বিকেলে বাংলাদেশ বিমানের একটি বিশেষ ফ্লাইটে দুটি দল শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করে। এরপর তারা বাসযোগে কাজির দেউরির একটি পাঁচ তারকা হোটেলে ওঠেন। বিষয়টি নিশ্চিত করে শাহ আমানত বিমানবন্দরের পরিচালক উইং কমান্ডার ফরহাদ হোসেন জাগো নিউজকে বলেন, বিকেলে বাংলাদেশ এবং পাকিস্তান ক্রিকেট দল চট্টগ্রাম বিমানবন্দরে পৌঁছায়। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কড়া নিরাপত্তায় বাসযোগে তারা হোটেলের উদ্দেশ্যে রওনা দেন। নগরপুলিশ কমিশনার সালেহ মোহাম্মদ তানভীর বলেন, বাংলাদেশ ও পাকিস্তান ক্রিকেট দল চট্টগ্রামে অবস্থানকালে নিরাপত্তার দায়িত্বে পুলিশের ৯০০ অফিসার ও ফোর্স কাজ করছে। পুলিশের পাশাপাশি কাজ করছে সেনাবাহিনী, র‌্যাব, এপিবিএন, ফায়ার সার্ভিস, সিভিল সার্জন ও বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যরা। আগামী শুক্রবার (২৬ নভেম্বর) নগরীর জহুর আহমদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ ও পাকিস্তান ক্রিকেট দলের মধ্যে শুরু হবে প্রথম টেস্ট ম্যাচ। এর আগে ২৪ ও ২৫ নভেম্বর একই স্টেডিয়ামে উভয় দলের অনুশীলন করার কথা রয়েছে। টেস্ট ম্যাচ শেষে ১ ডিসেম্বর ঢাকার উদ্দেশ্যে চট্টগ্রাম ছাড়বে দল দুটি।

 

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More