ঈদের তিনদিন আগে-পরে ট্রাক পারাপার বন্ধ

রাজবাড়ী প্রতিনিধি: আসন্ন ঈদে ঘরমুখো মামুষের ভোগান্তি কমাতে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে যুক্ত হবে আরও দুটি নতুন ফেরি। এ নৌরুটে এবার মোট চলবে ২১টি ফেরি। ২১টি ফেরি চলাচল করায় যাত্রীরা অনায়াসে নদী পারাপার হবেন। এদিকে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে ঈদের তিন দিন আগে ও তিন দিন পরে ট্রাক পারাপার বন্ধ থাকবে বলেও জানা গেছে। বর্তমানে এ নৌরুটে ছোট-বড় মিলে মোট ১৯টি ফেরি চলাচল করছে বলে দাবি ঘাট সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের। আর ঈদে ২১টি ফেরি নিয়মিত চলাচল করলে যাত্রীরা নির্বিঘেœ ঘরে ফিরতে পারবে বলে আশা প্রকাশ করেন তারা।

সোমবার সকালে রাজবাড়ী জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে আসন্ন ঈদ উপলক্ষে দৌলতদিয়া পাটুরিয়া নৌরুটে যাত্রী ও যানবাহন নির্বিঘেœ পারাপারের লক্ষ্যে সমন্বয় সভায় এ কথা জানান বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন (বিআইডাব্লিউটিসি) দৌলতদিয়া ঘাট শাখার ব্যবস্থাপক প্রফুল্ল চৌহান।

তিনি বলেন, দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে বর্তমানে ১৯টি ফেরি চলছে। ঈদের আগে আরও দুটি ফেরি যুক্ত হবে। মোট ২১ ফেরি চলবে ঈদের সময়। কোনো প্রাকৃতিক দুর্যোগ না হলে যাত্রীদের কোনো ভোগান্তি থাকবে না। আশা করছি এবারের ঈদে যাত্রীরা কোনোরকম ভোগান্তি ছাড়াই নির্বিঘেœ ঘরে ফিরে প্রিয়জনদের সঙ্গে ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করতে পারবেন।

রাজবাড়ীর জেলা প্রশাসক আবু কায়সার খানের সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য রাখেন-রাজবাড়ী-১ আসনের সংসদ সদস্য কাজী কেরামত আলী, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. সালাউদ্দিন, গোয়ালন্দ উপজেলা নির্বাহী অফিসার আজিজুল হক খান, গোয়ালন্দ পৌরসভার মেয়র মো. নজরুল ইসলাম ম-ল, এনএসআই রাজবাড়ী অফিসের উপপরিচালক শরিফুল ইসলাম, বিআইডাব্লিউটি এর পোর্ট অফিসার শাহ আলম মিঞা, রাজবাড়ী বাস মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মুরাদ হাসান প্রমুখ।

এ বিষয়ে রাজবাড়ী বাস মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মুরাদ হাসান অভিযোগ করে বলেন, শুকনো মৌসুমেও দুর্ভোগ থাকে দৌলতদিয়া ঘাটে। কয়েকদিন পরেই শুরু হবে পবিত্র ঈদুল ফিতর তখন যানবাহন ও যাত্রীর চাপ আরও বাড়বে। কিন্তু আমরা পরিবহনের চালক ও যাত্রীদের কাছ থেকে একটা অভিযোগ পেয়ে থাকি যে, ফেরির ধীরগতি থাকে, ৫ নম্বর ফেরিঘাটে গিয়ে ফেরি দাঁড়িয়েও থাকে। লোড আন লোডে সময় লাগে বেশি। একটু জোর গতিতে ফেরিগুলো চালালে ১০ মিনিট আগে ফেরিগুলো ঘাটে আসে। এভাবে ২০টি ফেরি যদি ১০ মিনিট করে সময় বাঁচায় তাহলে ফেরি টিপ সংখ্যা বাড়ে, আর ঘাটে ভোগান্তিও কমে। বিষয়গুলোর দিকে একটু নজর দেয়ার অনুরোধ জানান তিনি।

উল্লেখ্য, দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে চলাচলকারী যাত্রীদের পারাপারের কথা বিবেচনা করে সভায় সিদ্ধান্ত হয় ঈদের তিন দিন আগে ও তিন দিন পরে ট্রাক পারাপার বন্ধ থাকবে। তবে শুধু কাঁচামালবোঝাই ট্রাক পার হবে। প্রতিবারের মতো এবারো যাত্রীদের নিরাপত্তায় পর্যাপ্ত পুলিশ মোতায়েন থাকবে দৌলতদিয়া ঘাটে।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More