কুষ্টিয়ায় ২৪ঘন্টায় ৭২ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত, ফসলের ক্ষতি

কুষ্টিয়া প্রতিনিধিঃ উত্তর বঙ্গপসাগরে বায়ুুচাপের তারতম্যের আধিক্য বিরাজ করায় কুষ্টিয়াসহ আশপাশ এলাকায় ভারিবৃষ্টিপাত অব্যাহত রয়েছে। এরই মধ্যে গত ২৪ ঘন্টায় শুধুমাত্র কুষ্টিয়াতেই বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে ৭২ মিলিমিটার।
বুধবার (২৭ মে) বিকেল ৫টায় কুষ্টিয়ার কুমারখালী কৃষি আবহাওয়া পর্যবেক্ষণাগারের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মামুন-আর-রশিদ এতথ্য নিশ্চিত করে জানান, এমন পরিস্থিতি আগামী ৩দিন ধরে বিরাজমান থাকতে পারে।
এ দিকে গত ২৪ঘন্টা বিশেষ করে গত রাতে কুষ্টিয়ায় ৭২ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত হওয়ায় অধিকাংশ এলাকায় জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়। সেই সাথে উঠতি বোরো ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে।
গত ২০ মে ঘূর্ণিঝড় আম্পানের প্রভাবে কুষ্টিয়ায় ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়। বিশেষ করে উঠতি বোরো ফসল পানিতে তলিয়ে যায়। একই সাথে ঝড়ের কারনে অধিকাংশ ফসল মাটিতে লুটিয়ে পড়ে। এর ফলে ধানে চারা গজে যায়।
এরই মধ্যে ক্ষত কাটিয়ে উঠতে না উঠতে গতরাতে আবারো ভারি বৃষ্টিপাত হওয়ায় পুনরায় ক্ষতির সম্মুখীন হলো কৃষকরা। ফলে নতুন করে সংকটে পতিত হলো কৃষক।
কুষ্টিয়া কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের অতিরিক্ত উপপরিচালক (শস্য) রঞ্জন কুমার প্রামানিক জানান, আম্পানের পাশাপাশি এই বৃষ্টিপাতের কারণে বোরো ধান কর্তনের অসুবিধা হচ্ছে। বিশেষ করে খোকসা ও কুমারখালী উপজেলায় বোরো ধান নাবী হওয়ায় এখনো শতকরা ১৫ ভাগ জমির ধান কাটা হয়নি। এই বৃষ্টিতে কৃষকরা ধান কাটতে সমস্যায় পড়েছে, ধান মাড়াই, ঝাড়াই এ অসুবিধা হচ্ছে। সেই সাথে এই বৃষ্টি অব্যহত থাহলে সবজি ফসলের পচন রোগ হওয়ার সম্ভাবনা বেশি, রোগের পাদুর্ভাব বেশি হবে সেই সাথে কৃষকরা দাম কম পাবে। তবে এই বৃষ্টিতে বোরো ধানের ক্ষতি হলেও আউশ ধানের জন্য উপকার হবে।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More