খুলনায় মৃত্যুর মিছিলে আরও ১৭

খুলনায় গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় ও উপসর্গ নিয়ে আরও ১৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। শনিবার সকাল ৮টা থেকে রোববার সকাল ৮টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় তিন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাদের মৃত্যু হয়। এর মধ্যে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা ডেডিকেটেড ইউনিটে ১২ জন, খুলনা ২৫০ জেনারেল হাসপাতালের করোনা ইউনিটে দুজন ও বেসরকারি গাজী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। খুলনা করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালের ফোকাল পার্সন ডা. সুহাস রঞ্জন হালদার জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় খুলনা করোনা হাসপাতালে রেড জোনে ১২ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে করোনা আক্রান্ত হয়ে ৯ জন এবং উপসর্গ নিয়ে তিনজন মারা গেছেন। খুলনার ১৩০ শয্যার করোনা হাসপাতালে ১৬০ জন চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এর মধ্যে রেড জোনে ৯৬ জন, আইসিইউতে ১৯, এইচডিইউতে ২০ এবং ইয়েলো জোনে ২৫ জন ভর্তি রয়েছেন। ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ভর্তি হয়েছেন ৪৩ জন, আবার সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৩৯ জন। গাজী মেডিকেলের স্বত্বাধিকারী গাজী মিজানুর রহমান জানান, ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালে তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। তারা হলেন— খুলনার নেভিগেট এলাকার শামসুল আলম (৬৩), সাতক্ষীরার পলাশপুর এলাকার আব্দুস সামাদ (৭৫) ও নড়াইলের নরাগাতি এলাকার ঝর্ণা বেগম (৪৬)। এ হাসপাতালে ৮৮ জন চিকিৎসাধীন রয়েছেন, তার মধ্যে আইসিইউতে ছয় ও এইচডিইউতে পাঁচজন। এ ছাড়া হাসপাতালের পিসিআর মেশিনে ২৫ জনের নমুনা পরীক্ষায় ১৯ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।
খুলনা ২৫০ জেনারেল হাসপাতালের করোনা ইউনিটের মুখপাত্র ডা. কাজী আবু রাশেদ জানান, হাসপাতালে গত ২৪ ঘণ্টায় দুজনের মৃত্যু হয়েছে। এরা হলেন— বাগেরহাটের কাশিমপুর এলাকার আতিয়ার রহমান মল্লিক(৬৫) ও সাতক্ষীরার কালীগঞ্জের অলি উল্লাহ (৬৭)। এখানে মোট চিকিৎসাধীন রয়েছেন ৬৮ জন রোগী। খুলনা মেডিকেল কলেজের উপাধ্যক্ষ ডা. মেহেদী নেওয়াজ জানান, শনিবার রাতে খুমেকের পিসিআর মেশিনে ৪৭৬ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এর মধ্যে ২৩৬ জনের করোনা রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। যার মধ্যে খুলনার ২০১ জনের নমুনা পরীক্ষায় নতুন করে ১২৯ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে। এ ছাড়া বাগেরহাটে ৯৩ জন, যশোরে আটজন, সাতক্ষীরায় তিনজন, নড়াইলের একজন, পিরোজপুরের একজন ও ঝিনাইদহের একজন রয়েছেন।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More