চুয়াডাঙ্গায় একজনসহ ১১ জেলায় প্রাণ গেলো ১৯ জনের

দেশে আশঙ্কাজনকভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে বজ্রপাতে মৃত্যু

স্টাফ রিপোর্টার: দেশে আশঙ্কাজনকভাবে বজ্রপাতে মৃত্যুর ঘটনা ঘটছে। গতকাল শুক্রবার সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত সময়ে চুয়াডাঙ্গায় একজনসহ দেশের ১১ জেলায় বজ্রপাতে অন্তত ১৯ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। এর মধ্যে ময়মনসিংহে মারা গেছেন ৬, সিরাজগঞ্জে ৩, রাজশাহীতে ২ জন। এছাড়া নওগাঁ, বগুড়া, জামালপুর, ঢাকা, নাটোর, চুয়াডাঙ্গা, গাজীপুর ও দিনাজপুর জেলায় একজন করে মারা গেছেন।

এদিকে, সারাদেশে চলা বৃষ্টি আরও দুই থেকে তিন দিন থাকতে পারে বলে এক পূর্বাভাসে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। অস্থায়ীভাবে বইতে পারে দমকা হাওয়া। গতকাল শুক্রবার আবহাওয়া অধিদপ্তরের আবহাওয়াবিদ এ কে এম নাজমুল হক এমনটাই জানিয়েছেন গণমাধ্যমকে। অধিদপ্তরের পক্ষে আরো জানানো হয়েছে, আগামী ২৪ ঘণ্টায় মৌসুমী বায়ুর প্রভাবে রাজশাহী, রংপুর, ময়মনসিংহ, চট্টগ্রাম, ঢাকা ও সিলেট বিভাগের অধিকাংশ জায়গায় হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি হতে পারে। এসব জায়গায় হতে পারে বজ্রসহ বৃষ্টি। খুলনা ও বরিশাল বিভাগের অনেক জায়গায় একই ধরনের প্রবণতা দেখা যেতে পারে। কোথাও কোথাও ভারী থেকে অতি ভারী বর্ষণ হতে পারে। আরও জানানো হয়েছে, রাজধানীতে আজ সারা দিন থেমে থেমে বৃষ্টি চলতে পারে। আগামী দুইদিন বৃষ্টি হতে পারে এই অবস্থা অব্যাহত থাকতে পারে, তবে তার পরিমাণ কম হতে পারে।

এদিকে, আগামী ২৪ ঘণ্টায় মৌসুমী বায়ুর প্রভাবে রাজশাহী, রংপুর, ময়মনসিংহ, চট্টগ্রাম, ঢাকা ও সিলেট বিভাগের অধিকাংশ জায়গায় হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি হতে পারে। এসব জায়গায় হতে পারে বজ্রসহ বৃষ্টি। অস্থায়ীভাবে বইতে পারে দমকা হাওয়া। খুলনা ও বরিশাল বিভাগের অনেক জায়গায় একই ধরনের প্রবণতা দেখা যেতে পারে। কোথাও কোথাও ভারী থেকে অতি ভারী বর্ষণ হতে পারে।

ময়মনসিংহ: ময়মনসিংহে মাছ ধরতে গিয়ে পৃথক বজ্রপাতের ঘটনায় তিন শিশুসহ ৬জনের মৃত্যু হয়েছে। শুক্রবার  সকাল থেকে দুপুরের দিকে জেলা সদর, নান্দাইল ও ধোবাউড়া উপজেলায় এসব ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন সদর উপজেলার দড়ি কুষ্টিয়া ইউনিয়নের দড়ি কুষ্টিয়া গ্রামের কৃষক আবু বাক্কার (৪০) ও জাহাঙ্গীর আলম (৩০), নান্দাইল উপজেলার গাঙ্গাইল ইউনিয়নের কংকরহাটি গ্রামের শহীদুল্লাহর ছেলে সাঈদ মিয়া (১২), হাদিস মিয়ার ছেলে স্বাধীন মিয়া (১১) ও বিল্লাল হোসেনের ছেলে শাওন (৮) এবং ধোবাউড়া উপজেলার গোয়াতলা ইউনিয়নের মাটিখলা গ্রামের আবু সাইদ (৩২)। ময়মনসিংহের কোতোয়ালি মডেল থানার ওসি শাহ কামাল আকন্দ বজ্রপাতে দুই কৃষক নিহত হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

অন্যদিকে গাঙ্গাইল ইউনিয়নের কংকরহাটি গ্রামের ইউপি সদস্য মো. গোলাপ হোসেন বলেন, বৃষ্টির সময় ওই তিন শিশু একসঙ্গে মাছ ধরতে যায়। দুপুর ২টার দিকে হঠাৎ বজ্রপাত হলে তারা গুরুতর আহত হয়। পরে স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে দুজনকে নান্দাইল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও একজনকে কিশোরগঞ্জ সদর হাসপাতালে নেন। কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেন।

এদিকে, ধোবাউড়ায় মাছ ধরতে গিয়ে বজ্রপাতে আবু সাইদ মারা যান। শুক্রবার সকালে উপজেলার গোয়াতলা ইউনিয়নের মাটিখলা গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। নিহত আবু সাইদ ওই এলাকার মৃত আব্দুল গফুরের ছেলে।

সিরাজগঞ্জ: সিরাজগঞ্জে পৃথক বজ্রপাতের ঘটনায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব রেলসেতুর সিকিউরিটি গার্ডসহ তিনজন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় গুরুতর আহত হয়েছেন দুজন। শুক্রবার দুপুরের দিকে সদর উপজেলার সায়দাবাদ ইউনিয়নের সায়দাবাদ শিল্পপার্ক এলাকায় জাহাঙ্গীর আলম খানের ছেলে নাসির উদ্দিন মারা যান। বেলা সাড়ে ১১টার দিকে যমুনার চরাঞ্চলের বর্ণি এলাকায় দরবেশ আলী মুন্সীর ছেলে আবদুর রাজ্জাক মুন্সী মারা যান। এছাড়া দূর্গা চরন (৫২) নামের এক কৃষকের মৃত্যু হয়েছে।

সিরাজগঞ্জ সদর থানার ওসি নজরুল ইসলাম বলেন, সদর থানার দুটি স্থানে দুজন শ্রমিক বজ্রপাতে নিহত হয়েছে। আহত হয়েছে আরও দুজন। তাদের সিরাজগঞ্জ বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

বগুড়া: বগুড়ার আদমদীঘি উপজেলায় মরিচ ক্ষেত পরিচর্যা করতে গিয়ে বজ্রপাতে জহুরুল ইসলাম (২১) নামে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। নিহত জহুরুল উপজেলার ছাতিয়ানগ্রাম ইউপির কোমারভোগ গ্রামের মোসলেম উদ্দিনের ছেলে। শুক্রবার বেলা ১২টায় নিহতের বাড়ির পাশে ফসলি মাঠে ঘটনাটি ঘটে। আদমদিঘী থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) প্রদীপ কুমার বর্মণ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, বেলা ১২টার দিকে জহুরুল বাড়ির পাশে মরিচ ও অন্যান্য সবজি ক্ষেত পরিচর্যা করছিলেন। এসময় বজ্রপাতে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে।

জামালপুর: জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে বিলের পানিতে মাছ ধরতে গিয়ে বজ্রপাতে শাকিল (১৫) নামে এক স্কুলছাত্রের মৃত্যু হয়েছে। শুক্রবার সকালে উপজেলার কামরাবাদ ইউনিয়নের শুয়াকৈর বিলে এ ঘটনা ঘটে। শাকিল উপজেলার শুয়াকৈর দক্ষিণ পাড়া গ্রামের আনোয়ারের ছেলে ও জমশের আলী উচ্চবিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্র।

স্থানীয় সূত্র জানায়, বৃষ্টিতে শাকিল শুক্রবার সকালে শুয়াকৈর বিলে মাছ ধরতে যায়। এ সময় হঠাৎ বজ্রপাতে বিলের পানিতে লুটিয়ে পড়ে সে। খবর পেয়ে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। সরিষাবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক ডা. দেবাশীষ রাজবংশী বলেন, আজ সকালে মৃত অবস্থায় ছেলেটিকে হাসপাতালে আনা হয়েছিল। বজ্রপাতে তার মৃত্যু হয়।

রাজশাহী: রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলায় বজ্রপাতে নাদিরা বেগম (৫৫) নামে এক নারীর মৃত্যু হয়েছে। রিশিকুল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম টুলু এই তথ্য নিশ্চিত করে জানান, বৃষ্টির সময় মাঠে গরু আনতে গিয়েছিলেন নাদিরা বেগম। এ সময় বজ্রপাত হলে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। এদিকে মোহনপুর উপজেলায় ফুটবল খেলতে গিয়ে বজ্রপাতে কিশোরের মৃত্যু হয়েছে। মোহনপুর থানার ওসি তৌহিদুল ইসলাম জানান, দুপুরে বৃষ্টির সময় খোলা জায়গায় কয়েকজন কিশোর ফুটবল খেলছিল। বজ্রপাতের বিকট শব্দ হলে রাব্বি মাটিতে লুটিয়ে পড়ে যায়।

নওগাঁ: নওগাঁর মান্দা উপজেলায় গরু চরাতে গিয়ে বজ্রপাতে নাঈম হোসেন (১৪) নামে এক কিশোর নিহত হয়েছে। মান্দা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহিনুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। স্থানীয়দের বরাত দিয়ে ওসি বলেন, দুপুরের দিকে মুষলধারে বৃষ্টি হচ্ছিলো। বৃষ্টি উপেক্ষা করে নাঈম হোসেন বাড়ির পাশে মাঠে গরু নিয়ে যায়। এ সময় বজ্রপাত ঘটলে ঘটনাস্থলেই নাঈম মারা যায়।

ঢাকা: ঢাকার কেরানীগঞ্জের রোহিতপুর এলাকায় খেলতে গিয়ে বজ্রপাতে সজীব সরকার (১৮) নামে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। কেরানীগঞ্জ মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ আবু ছালাম মিয়া এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন। জানা যায়, সকালে বালুর মাঠে ফুটবল খেলছিলেন সজীবসহ অন্যরা। একপর্যায়ে বল মাঠের বাইরে চলে গেলে সজীব দৌড়ে বল আনতে যাওয়ার সময় বজ্রপাত হয় এবং ঘটনাস্থলেই মারা যান।

নাটোর: বজ্রপাতে নাটোরের বাগাতিপাড়ার বাঁশবাড়িয়া ডিগ্রি কলেজের দর্শন বিভাগের এক শিক্ষক নিহত হয়েছেন। বাঁশবাড়িয়া কলেজের অধ্যক্ষ সাবিহা সুলতানা জানান, আতাউর রহমান তাঁর কলেজের দর্শন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ছিলেন। তিনি দুপুরে নিজবাড়ির পানির লাইনে সমস্যা হওয়ায় তা দেখতে ছাদে যান। তখনই বজ্রপাতের ঘটনা ঘটে। ছাদ থেকে ফিরতে দেরি দেখে তার স্ত্রীও ছাদে যান। তিনি গিয়ে দেখেন আতাউর পড়ে আছেন। স্ত্রীর চিৎকারে লোকজন এসে তাকে পুঠিয়া হাসপাতালে নিয়ে যায়। এ সময় চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

চুয়াডাঙ্গা: চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গা উপজেলায় রহিম উদ্দিন (৫৫) নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। শুক্রবার বিকেলে উপজেলার ফরিদপুর গ্রামের দোপের মাঠে বজ্রপাতের এ ঘটনা ঘটেছে। নিহত রহিম উদ্দিন ফরিদপুর গ্রামের বলো জোয়ার্দ্দারের ছেলে। গ্রামবাসী জানায়, গতকাল বিকেলে রহিম উদ্দিন মাঠে কৃষি কাজ করছিলেন। এ সময় ঝড়-বৃষ্টির সঙ্গে বজ্রপাতের ঘটনা ঘটে। বজ্রপাতে সে ঘটনাস্থলে নিহত হয়। বিষয়টি নিশ্চিত করে আলমডাঙ্গা থানার ওসি মো. সাইফুল ইসলাম বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে।

গাজীপুর: গাজীপুরের কালিয়াকৈরে বজ্রপাতে সোবহান হোসেন নামে এক কৃষকের মৃত্যু হয়েছে। ফুলবাড়িয়া ৬ নং ওয়ার্ডের মজিদচালা ৬নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য শফিকুল ইসলাম জানান, সোবহান হোসেন শুক্রবার বিকেলে বাড়ির পাশ থেকে গরু আনতে যান। এ সময় বজ্রপাতে ওই কৃষকের মৃত্যু হয়।

দিনাজপুর: দিনাজপুরের পার্বতীপুরে বজ্রপাতে ইসমত আরা (৪০) নামে এক গৃহবধূর মৃত্যু হয়েছে। নিহতের ভাগ্নে তরিকুল ইসলাম জানান, সন্ধ্যায় বৃষ্টি শুরু হলে পাতা কামুরি পুকুর থেকে হাঁস আনতে যান মামি। এ সময় হঠাৎ বজ্রপাত হলে ঝলসে গিয়ে ঘটনাস্থলেই মারা যান তিনি।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More