জীবননগরে গৃহহীনদের স্বপ্ন দেখাচ্ছে প্রধানমন্ত্রীর উপহার ‘স্বপ্ন নীড়’

জীবননগর ব্যুরো: জীবননগর উপজেলায় ভূমিহীন ও গৃহহীনদের জন্য নির্মিত হচ্ছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দেয়া উপহার ‘স্বপ্ন নীড়’। মুজিববর্ষ উপলক্ষে জীবননগর উপজেলায় ঘর তৈরি হওয়ায় উপজেলায় গৃহহীন পরিবারগুলোর মুখে হাসি ফুটেছে। উন্মুখ হয়ে অপেক্ষার প্রহর গুনছে ১৮টি পরিবার। আগামী ১ মাসের মধ্য গৃহহীনদের মধ্যে ঘরগুলো বরাদ্দ দেয়া হবে। নির্মাণাধীন ঘরগুলো সার্বিকভাবে তদারকি করছেন জীবননগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) এসএম মুনিম লিংকন, অ্যাসিল্যান্ড মো. মহিউদ্দিন ও প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মো. মিজানুর রহমান।

জীবননগর উপজেলা প্রশাসন সূত্র জানায়, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারের জন্য চলতি অর্থ বছরে জীবননগর উপজেলার ৩টি ইউনিয়নে ১৮টি ঘর নির্মাণ করা হচ্ছে। দুই কক্ষবিশিষ্ট সেমি পাকা ঘর নির্মাণে প্রতিটি ঘর বাবদ বরাদ্দ দেয়া হয়েছে ১ লাখ ৭১ হাজার টাকা। প্রতিটি ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারের জন্য থাকছে আধুনিক সুযোগ-সুবিধা সম্বলিত বারান্দাসহ দুই কক্ষবিশিষ্ট ঘর, একটি রান্না ঘর এবং একটি টয়লেট। এরই মধ্যে কাজের অগ্রগতি প্রায় শেষের পথে। আগামী ১ মাসের মধ্যে ঘরগুলো গৃহহীনদের মাঝে বরাদ্দ দেয়া হবে।

জীবননগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এসএম মুনিম লিংকন বলেন, মুজিববর্ষ উপলক্ষে সরকার কর্তৃক প্রদেয় এই প্রকল্প অত্যন্ত সুন্দরভাবে সম্পন্ন হওয়ার পথে। কিছু অসম্পন্ন কাজ সমাপ্ত হওয়ার পর অল্প কয়েকদিনের মধ্যে এগুলো ঘরহীন অসহায় পরিবারগুলোর মধ্যে বরাদ্দ দেয়া হবে। এই ঘর বরাদ্দে কোনো প্রকার তদবির ও অনৈতিক সুযোগ-সুবিধা যেনো কেউ নিতে না পারে সেজন্য সঠিক তদারকি করা হচ্ছে।

এদিকে গতকাল রোববার দুপুরে চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসক মো. নজরুল ইসলাম সরকার জীবননগর উপজেলার সেনেরহুদা গ্রামে নির্মাণাধীন ৯টি ঘরের নির্মাণ কাজ পরিদর্শনে আসেন। এসময় তিনি কাজের অগ্রগতি এবং কাজের মান দেখে সন্তোষ প্রকাশ করেন। এ সময় জেলা প্রশাসকের সাথে আরো উপস্থিত ছিলেন, জীবননগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এসএম মুনিম লিংকন, জেলা প্রশাসনের দু’ কর্মকর্তা সহকারী কমিশনার শিবানী সরকার এবং সহকারী কমিশনার আমজাদ হোসেন, জীবননগর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. সাইফুল ইসলাম, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মো. মিজানুর রহমান এবং উথলী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. আবুল কালাম আজাদ।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More