ঢাবিতে ৮১ ঘণ্টা পর অনলাইনে ভর্তি পরীক্ষার আবেদন শুরু

স্টাফ রিপোর্টার: ৮১ ঘণ্টা স্থগিত থাকার পর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক (সম্মান) প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষার অনলাইন আবেদনপ্রক্রিয়া রোববার রাত ১০টার দিকে আবার শুরু হয়েছে। অতিরিক্ত চাপে কারিগরি জটিলতা তৈরি হওয়ায় গত বৃহস্পতিবার বেলা পৌনে একটায় অনলাইন আবেদনের এ কার্যক্রম স্থগিত করা হয়েছিলো। এ পরিস্থিতির কারণে নষ্ট হওয়া তিন দিন সময় প্রয়োজনে বাড়িয়ে দেয়া হবে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অনলাইন ভর্তি কমিটির আহ্বায়ক এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটারবিজ্ঞান ও প্রকৌশল বিভাগের অধ্যাপক মোস্তাফিজুর রহমান রাত পৌনে ১২টায় জানিয়েছেন, রোববার রাত ১০টা থেকে থেকে ভর্তি-ইচ্ছুক শিক্ষার্থীরা অনলাইনে (ধফসরংংরড়হ.বরং.ফঁ.ধপ.নফ-এই ঠিকানায়) প্রবেশ করে ভর্তির আবেদন করতে পারছেন। প্রথম পৌনে দুই ঘণ্টায় প্রায় চার হাজার নতুন আবেদন জমা পড়েছে।

৮ মার্চ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির অনলাইন আবেদন প্রক্রিয়ার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন উপাচার্য মো. আখতারুজ্জামান। আবেদনপ্রক্রিয়ার শুরু থেকেই ওয়েবসাইটের কারিগরি সমস্যার কথা জানিয়ে আসছিলেন ভর্তি-ইচ্ছুক শিক্ষার্থীদের অনেকে। প্রথম ৪৮ ঘণ্টায় পাঁচ ইউনিটে মোট ১ লাখ সাড়ে ৫ হাজার আবেদন জমা পড়ে।

ওয়েবসাইটে একই সময়ে সাড়ে চার হাজারজনের প্রবেশ করার সুযোগ থাকলেও এর চেয়ে অনেক বেশি প্রার্থী প্রবেশের চেষ্টা করায় তখন কারিগরি জটিলতা তৈরি হয়।

এমন অবস্থায় বৃহস্পতিবার দুপুরে অনলাইন আবেদনের প্রক্রিয়া স্থগিত করা হয়। আগের একটি সার্ভারের সঙ্গে আরও দুটি নতুন সার্ভার স্থাপন করে রোববার রাত থেকে আবারও আবেদন গ্রহণ শুরু হয়। এখন একই সময়ে অন্তত ১১ হাজার শিক্ষার্থী ওয়েবসাইটটিতে প্রবেশ করতে পারছেন বলে জানালেন অধ্যাপক মো. মোস্তাফিজুর রহমান।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অনলাইন ভর্তি কমিটির আহ্বায়ক আরও বললেন, ‘এর আগে ৩০ মার্চ পর্যন্ত আবেদনের সময় নির্ধারিত ছিলো, টাকা জমা দেয়ার শেষ তারিখ ছিলো ১ এপ্রিল। কারিগরি জটিলতার কারণে নষ্ট হওয়া তিন দিন সময় প্রয়োজন হলে এপ্রিল মাসের সঙ্গে সমন্বয় করে ভর্তির অনলাইন আবেদন ও তার ফি জমা দেয়ার সময়সীমা বাড়ানো হবে।’

আগামী ২১ মে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞান অনুষদভুক্ত ক ইউনিট, ২২ মে কলা অনুষদভুক্ত খ ইউনিট, ২৭ মে ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদভুক্ত গ ইউনিট, ২৮ মে সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদভুক্ত ঘ ইউনিট ও ৫ জুন চারুকলা অনুষদভুক্ত চ ইউনিটের বহুনির্বাচনী পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। চ ইউনিটের অঙ্কন পরীক্ষা হবে ১৯ জুন। প্রতিটি ইউনিটের পরীক্ষা বেলা ১১টা থেকে দুপুর সাড়ে ১২টা পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হবে। রাষ্ট্রায়ত্ত চারটি ব্যাংকের পাশাপাশি মোবাইল ব্যাংকিং, ইন্টারনেট ব্যাংকিং সেবা ইত্যাদি ব্যবহার করে এবার ভর্তি-আবেদনের নির্ধারিত ফি জমা দেয়া যাবে।

 

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More