দেশের ৩১ জেলায় করোনা শনাক্ত শূন্য : নতুন রোগী নেই

স্টাফ রিপোর্টার: স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের করোনাসংক্রান্ত নিয়মিত ব্রিফিংয়ে গতকাল রোববার বলা হয় সংক্রমণের হার নিম্নমুখী। গত দুই সপ্তাহের বেশি সময় ধরে এ হার ২ এর নিচেই থাকছে। সেই ধারাবাহিকতা গতকালও বজায় রইলো। করোনা শনাক্তের হার ১ দশমিক ১৭। এ হার গতকাল শনিবারের চেয়েও কম। গতকাল রোববার দেশের ৩১ জেলায় কারও করোনা শনাক্ত হয়নি। বিকেলে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, ২৪ ঘণ্টায় দেশে নতুন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে ১৭৮ জনের। মারা গেছেন চারজন। গতকাল ১৫৪ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছিল। মৃত্যু হয়েছিল একজনের। এটি ছিল গত ১৯ মাসের মধ্যে করোনায় একদিনে সর্বনিম্ন মৃত্যুর রেকর্ড। এর আগে সর্বশেষ গত বছরের ৯ এপ্রিল একজনের মৃত্যুর তথ্য দিয়েছিল স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। গতকালের তুলনায় শনাক্ত ও মৃত্যু বেড়েছে বটে, তবে কমেছে শনাক্তের হার। সর্বশেষ ২৪ ঘণ্টায় মোট ১৫ হাজার ২৩৪ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। পরীক্ষার বিপরীতে রোগী শনাক্তের হার ১ দশমিক ১৭। আগের দিন এ হার ছিল ১ দশমিক ১৮।
গত বছরের মার্চে দেশে প্রথম করোনার প্রাদুর্ভাব দেখা দেয়। এর পর থেকে এখন পর্যন্ত মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ১৫ লাখ ৭১ হাজার ১৩। তাদের মধ্যে মারা গেছেন ২৭ হাজার ৮৯৫ জন। এখন পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ১৫ লাখ ৩৪ হাজার ৮২৫ জন। সর্বশেষ ২৪ ঘণ্টায় ১৯০ জন সুস্থ হয়েছেন। গতকাল যে চারজনের মৃত্যু হয়েছে, তাদের মধ্যে পুরুষ তিনজন ও একজন নারী। তাদের মধ্যে দুজন ঢাকা বিভাগের। একজন করে মারা গেছেন চট্টগ্রাম ও রাজশাহী বিভাগে।
২০১৯ সালের ডিসেম্বরে চীনের উহানে প্রথম করোনা সংক্রমণ দেখা দেয়। কয়েক মাসের মধ্যে এ ভাইরাস বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পড়ে। বাংলাদেশে প্রথম করোনার সংক্রমণ শনাক্ত হয় গত বছরের ৮ মার্চ। প্রথম মৃত্যুর খবর জানানো হয় একই বছরের ১৮ মার্চ। এরপর বিভিন্ন সময় করোনার সংক্রমণ কমবেশি হয়েছে। তবে চলতি বছরের মে মাসের শেষের দিকে দেশে করোনার ডেলটা ধরনের দাপটে পরিস্থিতি খারাপ হতে থাকে। গত আগস্টের প্রথম দিকে করোনার গণটিকা দেয়া শুরু হয়। এরপর সংক্রমণ ও মৃত্যু উভয়ই কমতে শুরু করে।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More