করোনা মহামারীর দীর্ঘ দেড় বছর পর দর্শনা জয়নগর চেকপোস্টের কার্যক্রম শুরু

প্রথম দিনে বাংলাদেশ-ভারত যাতায়াতকারী যাত্রী সংখ্যা ছিলো ১৩৩ জন
দর্শনা অফিস: দেড় বছর পর প্রাণচাঞ্চল্য ফিরে আসতে শুরু করেছে দর্শনা জয়নগর চেকপোস্ট এলাকায়। কাক ডাকা ভোর থেকে যে স্থানে মানুষের আনাগোনায় ছিলো মুখরিত। মহামারী করোনার কারণে সে স্থানটি জনমানবহীন শ্মশানে পরিণত হয়েছিলো দীর্ঘ টানা দেড় বছর। গতপরশু শনিবার গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের পরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মাসুদ বিন মোমেন স্বাক্ষরিতপত্রে রোববার থেকে দর্শনা জয়নগর, বেনাপোল, আখাউরা, বুড়িমারী, হিলি ও সোনা মসজিদ ইমিগ্রেশন, বিজিবি ও কাস্টমস চেকপোস্টের কার্যক্রম শুরুর নির্দেশ দেন। এ রকম সংবাদ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক পোস্ট ভাইরাল সৃষ্টি করে। গতকাল রোববার সকাল থেকেই বেশ গোছালোভাবে ইমিগ্রেশন ও কাস্টমসের কর্মকর্তা-কর্মচারীর অফিসে পৌঁছান। সকাল ৮টার দিকে ইমিগ্রেশন ও কাস্টমসের কার্যক্রম শুরু করা হলেও যাত্রীরা আটকে যায় বিজিবি চেকপোস্টে।
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে প্রয়োজনী নির্দেশনাপত্র হাতে না পাওয়ায় বিজিবি চেকপোস্টের কার্যক্রম বন্ধ রাখে। সকালের বেশ কয়েকজন যাত্রী ইমিগ্রেশন ও কাস্টমসের কার্যক্রম শেষ করে বেশ হতাশার মধ্যে পড়েন। বিজিবি চেকপোস্টে আইনি জটিলতার কারণে তারা ফিরে যান। ফিরে যাওয়া যাত্রীদের মধ্যে কেউ কেউ বেনাপোল চেকপোস্টের মাধ্যমে ভারতে গেছেন বলেও জানা গেছে।
এদিকে দর্শনা জয়নগর চেকপোস্টের ইমিগ্রেশন অফিসার এসআই আ. আলীম জানান, গতকাল রোববার দুপুর ১টার পর বিজিবি সংশ্লিষ্ট বিভাগের অনুমতি সাপেক্ষে তাদের কার্যক্রম শুরু করে। ফলে প্রথম দিনে বাংলাদেশ থেকে ভারতে গেছে ৩৫ ও ভারত থেকে বাংলাদেশে ফিরেছে ৯৮জন পাসপোর্টধারী যাত্রী। প্রত্যেক যাত্রীকে স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হচ্ছে চেকপোস্টেই। বিশ্ব মহামারী করোনার কারণে গত বছরের ২৬ মার্চ দর্শনা জয়নগর সীমান্ত পথে ভারত-বাংলাদেশ যাতায়াত বন্ধ করা হয়। চলতি বছরের ১৭ মে ভারতে আটকে পড়া বাংলাদেশের বিপন্নযাত্রীদের দেশে ফেরার সুযোগ করে দেয় সরকার। গতকাল গত পরশু ১৮ সেপ্টেম্বর শনিবার পর্যন্ত ভারতে আটকে পড়া ২০৮১ জন যাত্রী বাংলাদেশে ফিরেছে। এ দিকে এ বছরের ১৭ মে থেকে চিকিৎসা ভিসায় বাংলাদেশ থেকে ভারতে যাওয়ার নির্দেশনা থাকলেও ভারতের গেদে ইমিগ্রেশন, কাস্টমস ও বিএসএফর কারণে তা সম্ভব হয়নি। দীর্ঘ ১৮ মাস পর কিছুটা হলেও জমজমাট হয়ে ওঠে। ধারণা করা হচ্ছে যতই দিন যাবে, ততই বাড়বে যাত্রী সংখ্যা। জয়নগর চেকপোস্ট এলাকা পুনরায় ফিরে পাবে প্রাণ চাঞ্চল্যতা।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More