চুয়াডাঙ্গায় করোনা ও উপসর্গ নিয়ে আরও ৮ জনের মৃত্যু : শনাক্ত ৪০

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গায় গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা আক্রান্ত হয়ে ছয়জন ও উপসর্গ নিয়ে দুজনসহ মোট ৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের তথ্যনুযায়ী জেলায় করোনায় মৃতের সংখ্যা দাঁড়ালো ১৮৯ জনে। এদিন চুয়াডাঙ্গা নতুন করে ৪০ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে। চুয়াডাঙ্গা স্বাস্থ্য বিভাগ মঙ্গলবার নতুন ২৪৫ জনের নমুনা সংগ্রহ করেছে। এনিয়ে জেলায় মোট নমুনা সংগ্রহের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২৩ হাজার ১৬০ জন। এদিন ২৬৫ জনের নমুনা পরীক্ষার রিপোর্ট পাওয়া গেছে। এ নিয়ে মোট ২২ হাজার ৮৯৪ জনের নমুনা পরীক্ষার রিপোর্ট পাওয়া গেছে। ২৬৫ জনের নমুনা পরীক্ষার রিপোর্টে ৪০ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে জেলায় মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়ালো ৬ হাজার ১৬৯ জন। এ সময় সুস্থ হয়েছেন ১১৭ জন। এনিয়ে জেলায় মোট সুস্থ হলেন ৪ হাজার ২৭৮ জন। বর্তমানে সক্রিয় রোগীর মধ্যে হাসপাতালে রয়েছেন ৮৩ জন আর বাড়িতে রয়েছেন ১ হাজার ৬১৯ জন। নতুন যে ৪০ জন শনাক্ত হয়েছেন তার মধ্যে সদর উপজেলার ২৫জন, আলমডাঙ্গা উপজেলার সাতজন, দামুড়হুদার তিনজন ও জীবননগরের পাঁচজন রয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে করোনা আক্রান্ত হয়ে যে ছয়জন মারা গেছেন তাদের পরিচয় প্রকাশ করেনি স্বাস্থ্য বিভাগ। হলুদ জোনে করোনাভাইরাস উপসর্গ হয়ে যে দুজন মারা গেছেন তারা হলেন, চুয়াডাঙ্গা পৌর এলাকার তালতলা গ্রামের হালিমা খাতুন সর্দি, কাশি ও জ্বরে ভুগছিলেন। তার অবস্থার অবনতি হলে গত ২৭ জুলাই রাত সাড়ে ১১টার দিকে সদর হাসপাতালের হলুদজোনে ভর্তি করে চিকিৎসা দেয়া হয়। গতকাল মঙ্গলবার সকাল সোয়া ৮ টার দিকে ৩৫ বছরের এই নারীর মৃত্যু হয়।
চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার কুতুবপুর গ্রামের রহিমা খাতুন কয়েকদিন যাবত জ্বর, কাশি ও শ্বাসকষ্টজনিত রোগে ভুগছিলেন। তার অবস্থার অবনতি হলে গতকাল মঙ্গলবার সকাল ৯টার দিকে সদর হাসপাতালে নেয়া হয়। কর্তব্যরত চিকিৎসক করোনা ইউনিটের হলুদ জোনে রেখে চিকিৎসা দেন। এর দেড়ঘন্টা পর ৫৫ বছর বয়সী এই নারীর মৃত্যু হয়।
চুয়াডাঙ্গা সিভিল সার্জন ডা. এএসএম মারুফ হাসান বলেন, মঙ্গলবার করোনায় আক্রান্ত হয়ে রেডজোনে ছয়জনের মৃত্যু হয়েছে। উপসর্গ নিয়ে হলুদ জোনে মারা গেছেন দুজন। এ নিয়ে চুয়াডাঙ্গায় করোনায় মারা গেছেন ৭১ জন এবং জেলার বাইরে ১৮ জন। এ পর্যন্ত জেলায় মোট ৮৫ জন স্বাস্থ্যকর্মী করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এর মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ৭১ জন।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More