চুয়াডাঙ্গায় করোনা ভাইরাস আক্রান্তের সংখ্যা কমেছে

দেশে আরও মৃত্যু ১৪ : আজ উদ্বোধন হলেও সারা দেশে ভ্যাকসিন দেয়া শুরু হবে ৭ ফেব্রুয়ারি

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গায় করোনা ভাইরাস সংক্রমণ ও আক্রান্তের সংখ্যা কমেছে। উপসর্গে ভোগার সংখ্যাও হ্রাস পেয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার ১৫ জনের নমুনা পরীক্ষা করে একজনেরও কোভিড-১৯ পজেটিভ হয়নি। নতুন ১২ জনের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য ল্যাবে প্রেরণ করা হয়েছে। অপরদিকে দেশেও আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা কমেছে। সারা দেশে টিকা দেয়ার কার্যক্রমও শুরু হতে যাচ্ছে আগামী ৭ ফেব্রুয়ারি থেকে।

গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আরও ১৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে দেশে মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়ালো ৮ হাজার ৫৫জন। নতুন করে ৫শ ১৫ জন শনাক্তসহ দেশে মোট শনাক্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৫ লাখ ৩২ হাজার ৯১৬জন। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে করোনা ভাইরাসের বিষয়ে স্বাস্থ্য অধিদফতরের প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। বলা হয়, এ সময়ের মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ৪শ ৪৭ জন। এ নিয়ে মোট সুস্থ হয়েছেন ৪ লাখ ৭৭ হাজার ৪২৬ জন।

এর আগে সোমবার (২৫ জানুয়ারি) দেশে ৬শ ২ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছিল। এছাড়া আক্রান্তদের মধ্যে ১৮জন মারা যান। বাংলাদেশে গত ৮ মার্চ প্রথম করোনা ভাইরাসের রোগী শনাক্ত হলেও প্রথম মৃত্যুর খবর আসে ১৮ মার্চ। দিন দিন করোনা রোগী শনাক্ত ও মৃতের সংখ্যা বাড়ায় নড়েচড়ে বসে সরকার। ভাইরাসটি যেন ছড়িয়ে পড়তে না পারে সেজন্য শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানসহ সব সরকারি-বেসরকারি অফিস বন্ধ ঘোষণা করা হয়। করোনার বর্তমান পরিস্থিতির মধ্যেই ৩১ মে থেকে দেশের সরকারি-বেসরকারি অফিস খুলে দেয়া হয়েছে। তবে কয়েক ধাপ বাড়ানোর পর ১৬ জানুয়ারি পর্যন্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ছুটি ছিলো। সেই ছুটি ৩০ জানুয়ারি পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে। অপরদিকে ৭ ফেব্রুয়ারি থেকে সারাদেশে একযোগে করোনা ভাইরাসের ভ্যাকসিন দেয়ার কার্যক্রম শুরু হচ্ছে। মঙ্গলবার ঢাকার কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে টিকাদান কার্যক্রম পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক। আজ বুধবার ভার্চুয়ালি যুক্ত থেকে ভ্যাকসিন দেয়ার কার্যক্রম উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আজ বুধবার বিকেল সাড়ে ৩টায় রাজধানীর কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে প্রথম একজন নার্সের শরীরে ভ্যাকসিন প্রয়োগ করা হবে। এরপর ২৫ জনকে টিকা দেয়া হবে। স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রী যুক্ত হয়ে প্রথম পাঁচজনকে টিকা দেয়া দেখবেন।’ তিনি আরও জানান, প্রধানমন্ত্রীর উদ্বোধনের সঙ্গে সঙ্গে সুরক্ষা অ্যাপের মাধ্যমে টিকার জন্য নিবন্ধন কার্যক্রম চালু হবে। যারা অ্যাপের মাধ্যমে নিবন্ধন করতে পারবেন না তারা স্থানীয়ভাবে টিকাদান কেন্দ্রে গিয়ে নিবন্ধন করতে পারবেন। ইতোমধ্যে ভারত থেকে ৫০ লাখ ডোজ ভ্যাকসিন দেশে এসেছে। অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকা উদ্ভাবিত এই টিকা আনা হচ্ছে সেরাম ইনস্টিটিউট অব ইন্ডিয়া থেকে ক্রয়চুক্তি অনুযায়ী। বাংলাদেশে ভ্যাকসিন আনছে বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালস। এর আগে ২১ জানুয়ারি বাংলাদেশকে ২০ লাখ ডোজ করোনা টিকা উপহার দেয় ভারত।

এদিকে চুয়াডাঙ্গায় করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত সক্রিয় রোগী কমে গতরাতে শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত ৬জন ছিলেন। এর মধ্যে বাড়তে ৫ জন ও একজন ঢাকায়। চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের রেডজোনে গতকাল কোন কোভিড-১৯ রোগি ছিলেন না। চুয়াডাঙ্গায় এ পর্যন্ত মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১ হাজার ৬শ ৫৯ জন। সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৬শ ৭ জন। মারা গেছেন চুয়াডাঙ্গায় আক্রান্তদের মধ্যে ৪২জন। বাইরে আক্রান্ত হয়ে চুয়াডাঙ্গার আরও ৪ জনের মৃত্যু হয়। ফলে মোট মৃতের সংখ্যা রয়েছে ৪৬ জনে।

 

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More