চুয়াডাঙ্গায় ভারত ফেরত এক কিশোরসহ করোনায় প্রাণ গেল দুজনের

চুয়াডাঙ্গায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে ভারত ফেরত এক কিশোরের মৃত্যু হয়েছে।  একই সময় মারা যান এক বৃদ্ধও। শুক্রবার (২১ মে) ভোরে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তারা।

চুয়াডাঙ্গা স্বাস্থ্য বিভাগ সূত্রে জানাগেছে, চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গা উপজেলা শহরের কলেজপাড়ার মিজানুর রহমানের ছেলে শাকিব উদ্দিন (১৭) দীর্ঘদিন থেকে ক্যান্সারে আক্রান্ত ছিলো।  গত ১ মাস আগে চিকিৎসার জন্য তাকে ভারতে নিয়ে যায় পরিবারের সদস্যরা।  সেখান থেকে গত ৯ মে যশোরের বেনাপোল সীমান্ত দিয়ে দেশে ফেরে শাকিব।  ভারত থেকে ফেরার পর গত ১০ মে তাকে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।  ওইদিন তার শরীর থেকে নমুনা নেয়া হয়।  পরদিন ১১ মে নমুনা পরীক্ষার প্রতিবেদনে করোনা শনাক্ত হলে তাকে সদর হাসপাতালের করোনা আইসোলেশন ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়।  আজ ভোর সাড়ে ৩টার দিকে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায় সে। শাকিব উদ্দিন ক্যান্সারেও আক্রান্ত ছিল বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য বিভাগ।

এদিকে, আজ ভোর ৪টার দিকে সদর হাসপাতালের করোনা আইসোলেশন ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আবুল হোসেন (৭৫) নামে এক বৃদ্ধ মারা গেছেন।  তিনি দামুড়হুদা উপজেলার মদনা গ্রামের মৃত ফরতুল্লাহর ছেলে। ঠান্ডা, জ্বর ও শ্বাসকষ্টজনিত কারণে গত ১৫ মে দুপুরে তাকে সদর হাসপাতালে ভর্তি করে পরিবারের লোকজন।  পরদিন ১৬ মে তার শরীর থেকে নমুনা সংগ্রহ করা হয়। ১৭ মে নমুনা পরীক্ষার প্রতিবেদনে তিনি করোনা শনাক্ত হন।  পরে আজ ভোরে করোনা আইসোলেশন ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি।

এ বিষয়ে চুয়াডাঙ্গা সিভিল সার্জন ডা. এ এসএম মারুফ হাসান জানান, করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়া ব্যক্তিদের স্বাস্থ্যবিধি মেনে দাফনের নির্দেশ দেয়া হয়েছে।  আর ভারত ফেরত ওই কিশোরের শরীরে করোনার ভারতীয় ভেরিয়েন্ট আছে কিনা তা পরীক্ষা করা হবে।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More