মেহেরপুরে করোনায় নতুন আক্রান্ত ৫৭ : মৃত্যু ৮

মেহেরপুর অফিস: মেহেরপুর জেলায় প্রতিদিনই করোনা আক্রান্ত ও উপসর্গ নিয়ে মৃত্যুর সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে। গতকাল সোমবার মেহেরপুর জেনারেল হাসপাতালের করোনা ওয়ার্ডে ৪ জন এবং জেলার বিভিন্ন স্থানে করোনা উপসর্গ নয়ে আরও ৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। মেহেরপুর জেনারেল হাসপাতালের করোনা ওয়ার্ডে সোমবার সকাল থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত ৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। এরা হচ্ছেন- মেহেরপুর শহরের ওয়াপদাপাড়ার ইউসুফ আলী (৭৭) ও বামনপাড়ার লুৎফর রহমান (৬০), সদর উপজেলার মনোহরপুর গ্রামের ইমামুল হক (৫৫) ও বসন্তপুর গ্রামের আলেয়া (৬০)। এদিকে গাংনী ও সদর উপজেলার বিভিন্ন স্থানে করোনা উপসর্গ নিয়ে আরও চার জনের মৃত্যু হয়েছে। হাসপাতালে নেয়ার সময় তাদের মৃত্যু হয় বলে পারিবারিকসূত্রে জানা গেছে। এ নিয়ে এ পর্যন্ত জেলায় মারা গেছেন ১০২ জন। গত ২৪ ঘন্টায় মেহেরপুরে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৭৩ জন। আক্রান্তের হার শতকরা ৩২ ভাগ। বর্তমানে করোনা পজেটিভ হয়ে জেনারেল হাসপাতালসহ বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন ৭৮৫ জন।
প্রতিদিন মেহেরপুরে মৃত্যুর মিছিলে যোগ হচ্ছে নতুন নতুন মুখ। করোনা সংক্রমণে লম্বা হচ্ছে মৃত্যুর মিছিল। দিনেদিনে করোনা রোগীর সংখ্যা বেড়েই চলেছে। এতে মেহেরপুরে সচেতন মানুষের মাঝে বাড়ছে উদ্বেগ আর উৎকন্ঠা। মেহেরপুরের লকডাউন কঠোরভাবে পালনে জেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসনের তৎপরতা অব্যাহত রয়েছে। সাথে যোগ হয়েছে র‌্যাব, সেনা সদস্য ও বিজিবি। তবে গতকাল রোববার মেহেরপুর শহরে লকডাউন পালিত হয়েছে ঢিলেঢালা। আর গ্রামে লগ ডাউন পালিত হচ্ছে না বলে অনেকে জানিয়েছেন।
গত ২৪ ঘন্টায় মেহেরপুর জেলায় নতুন করে আক্রান্ত ৭৩ জনের মধ্যে মেহেরপুর সদর উপজেলায় ৪১ জন, গাংনী উপজেলায় ২৩ জন ও মুজিবনগর উপজেলায় ৯ জন রয়েছেন। এ নিয়ে বর্তমানে জেলায় মোট করোনা ভাইরাস আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ৭৮৫ জন। গতকাল সোমবার রাতে সিভিল সার্জন ডা. মো. নাসির উদ্দিন এ তথ্য নিশ্চিত করেন।
মেহেরপুর সিভিল সার্জন অফিস থেকে আরো জানা যায়, কুষ্টিয়া ল্যাব থেকে ২২৭টি নমুনা পরীক্ষার রিপোর্ট পাওয়া যায়। এর মধ্যে ৭৩ জন করোনা রোগী চিহ্নিত হয়েছেন। বর্তমানে চিকিৎসাধীন মোট ৭৮৫জন করোনা রোগীর মধ্যে সদর উপজেলার বাসিন্দা ২৫২ জন, গাংনী উপজেলার বাসিন্দা ৪৩৫ জন ও মুজিবনগর উপজেলার বাসিন্দা ৯৮ জন রয়েছেন। এছাড়া ট্রান্সফার হয়েছেন ১১৯ জন। এদের মধ্যে সদর উপজেলার ৭৬ জন, গাংনী উপজেলার ১৮ জন ও মুজিবনগর উপজেলার ২৫ জন রয়েছেন। এছাড়া এ পর্যন্ত সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন এক হাজার ৭১৩ জন। যার মধ্যে সদর উপজেলায় ৯৪২ জন, গাংনী উপজেলায ৫৩৭ জন ও মুজিবনগর উপজেলায় ২৩৪ জন রয়েছেন। এছাড়া এ পর্যন্ত জেলায় মারা গেছেন কমপক্ষে ১০২জন।
এদিকে করোনা ভাইরাসের দ্বিতীয় দফায় উদ্বেগজনক হারে সংক্রমণ বৃদ্ধিতে মেহেরপুর জেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসন জনসচেতনতা বৃদ্ধিতে প্রচার-প্রচারণা অব্যাহত রেখেছে।
করোনাভাইরাস প্রতিরোধে সরকার ঘোষিত কঠোর লকডাউনের ১২তম দিনেও মেহেরপুরে অভিযান চালায় বাংণাদেশ সেনাবাহিনী। গতকাল সোমবার দুপুরের দিকে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সদস্যরা মেহেরপুর শহরের বিভিন্ন এলাকায় সচেতনতামূলক অভিযান চালান।
বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর যশোর সেনানিবাস যশোর ২৭ ফিল্ড রেজিমেন্ট আর্টিলারির মেজর মাহামুদ আফজালের নেতৃত্বে কোট এলাকা থেকে শুরু করে শহরের প্রধান প্রধান সড়কগুলোতে ব্যাপক সচেতনতামূলক অভিযান চালানো হয়। এ সময় অযথা যারা বাইরে ঘোরাফেরা করছিলেন তাদেরকে সতর্ক করে দেয়া হয়। একই সাথে অযথা বাইরে না আসার জন্য সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে সকলের প্রতি আহ্বান জানানো হয়।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More