যানবাহনে এলইডি লাইট নিয়ন্ত্রণ করা জরুরি

সম্পাদকীয়

দেশে প্রতিদিন সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণ হারাচ্ছেন মানুষ। দুর্ঘটনার এ ব্যাপকতার পেছনে রয়েছে নানা কারণ। বর্তমানে এতে নতুন মাত্রা যোগ করেছে যানবাহনের এলইডি লাইট। অত্যাধিক উজ্জ্বল ও শাদা আলোর কারণে ইদানিং অনেকেই যানবাহনের হেডলাইট হিসেবে এ বাতি ব্যবহার করছেন। ভেবে দেখছেন না এর ক্ষতিকর দিকগুলো। এলইডি হেডলাইটের আলোর তীব্রতায় বিপরীত দিক থেকে আসা যানবাহনের চালক প্রায় কিছুই দেখতে পান না। মুহূর্তে যেনো অন্ধ হয়ে যান তিনি। আর তখনই ঘটে দুর্ঘটনা। সাম্প্রতিক সময়ে মহাসড়কে দুর্ঘটনা বৃদ্ধির এটি একটি কারণ বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা। শুধু তা-ই নয়, এলইডি লাইট মানুষের চোখের জন্যও মারাত্মক ক্ষতিকর। চক্ষু বিশেষজ্ঞদের মতে, সহনীয় মাত্রার বেশি আলোকরশ্মি উৎপন্ন করায় এলইডি লাইট সরাসরি চোখের রেটিনায় আঘাত করে। এতে কর্নিয়াসহ দৃষ্টিশক্তির মারাত্মক ক্ষতির আশঙ্কা থাকে। কাজেই যানবাহনে এ ধরনের লাইটের ব্যবহার পরিহার করা উচিত। যানবাহনে এলইডি লাইটের ব্যবহার শুরু হয়েছে বেশ কয়েক বছর আগেই।

এক্ষেত্রে মূলত ব্যক্তিগত মোটরগাড়িতে এ লাইট ব্যবহার করছেন অনেকে। বর্তমানে বিভিন্ন মহাসড়কে চলাচলকারী যানবাহনেও এ লাইটের ব্যবহার শুরু হয়েছে। বাস, ট্রাক থেকে শুরু করে পিকআপভ্যান, মোটরসাইকেল, অটোরিকশা, এমনকি ব্যাটারিচালিত বাহনেও ব্যবহার করা হচ্ছে এলইডি লাইট। কোনো কোনো যানবাহনে হেডলাইট হিসেবে ব্যবহারের পাশাপাশি আরও কয়েকটি করে এলইডি লাইট লাগিয়ে ব্যবহার করা হয়। এসব যানবাহন যত্রতত্র দুর্ঘটনার কারণ হচ্ছে এবং মানুষের দৃষ্টিশক্তির ক্ষতি করছে। তবে বাস ও ট্রাকের মতো বেশি উচ্চতার ভারী যানবাহনগুলোই দুর্ঘটনার কারণ হচ্ছে বেশি। এ অবস্থায় যানবাহনে এলইডি লাইটের ব্যবহার নিয়ন্ত্রণ করা প্রয়োজন বলে মনে করি আমরা। বস্তুত, যানবাহনে এ ধরনের লাইটের ব্যবহার আইনত অবৈধ। একটি গাড়িতে নির্মাতাপ্রতিষ্ঠান যেভাবে হেডলাইট ও অন্যান্য লাইট লাগিয়ে দেয়, এর বাইরে অন্য যে কোনো ধরনের লাইট লাগানো বেআইনি। তাছাড়া যানবাহনে কোনো পরিবর্তনের ক্ষেত্রে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহণ কর্তৃপক্ষের অনুমোদন নিতে হয়। কিন্তু এ নিয়ম অনেকেই মেনে চলেন না। দেখা যায়, যে যার ইচ্ছেমতো গাড়িতে এলইডি লাইট লাগিয়ে ব্যবহার করছেন।

আমরা মনে করি, এ ব্যাপারে কর্তৃপক্ষের কঠোর হওয়া প্রয়োজন। এ ধরনের লাইট আমদানি ও বিক্রির ক্ষেত্রেও একই কথা প্রযোজ্য।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More