স্বাগত ২০২২

মহাকালের গর্ভে বিলীন হয়ে গেল আরও একটি বছর। বর্ষ পরিক্রমায় যুক্ত হলো আরেকটি পালক। নতুন একটি বর্ষে পদার্পণ করল বিশ্ব। স্বাগত খ্রিস্টীয় নববর্ষ ২০২২। পুরোনো বছরটি পেছনে ফেলে সম্মুখপানে এগিয়ে যাওয়ার দুরন্ত আহ্বানে মানুষ স্বাগত জানায় আগত ভবিষ্যতকে। বিদায়ী বছরের ব্যর্থতাকে সরিয়ে রেখে নতুন বছরে নতুনভাবে শুরু হলো পথচলা। পুরোনো বছরের সংশয়, সঙ্কট, উদ্বেগ কাটিয়ে উঠে নতুন ভাবনা নতুন আশায় নতুন করে দিনযাপনের শুরু আজ থেকে। স্বাধীনতার ৫০ বছর পূর্ণ করে বাংলাদেশও পা ফেলল ৫১ বর্ষে। খ্রিস্টীয় নতুন বছরের প্রথম প্রভাতে জনকণ্ঠের অগণিত পাঠক, লেখক, এজেন্ট, বিজ্ঞাপনদাতা ও শুভানুধ্যায়ীদের প্রতি আন্তরিক শুভেচ্ছা এবং অভিনন্দন। নতুন বছর সবার জীবনে শুভ হয়ে দেখা দেবে, এটাই কাম্য।
বাঙালি জীবনে গ্রেগরিয়ান নববর্ষ পালনের রেওয়াজ ব্রিটিশ শাসনামল থেকে অনুসৃত হয়ে আসছে। সম্প্রতি বেড়েছে পরিসরে। ইংরেজি নববর্ষ হিসেবে বাঙালির কাছে পরিচিত দিবসটি পালনের ধরন সারা পৃথিবীতে প্রায় একই রকম। তবে পশ্চিমা বিশ্বে এর আনন্দটা অনেক বেশি। পশ্চিমাদের সঙ্গে তাল মিলিয়ে বাঙালীও নতুন আনন্দে মেতে ওঠে। বহু মানুষ এদিন শুভেচ্ছা বিনিময় করেন। শুভেচ্ছা কার্ড, এসএমএস, ফেসবুক, টুইটার এবং ই-মেইলে হাজার হাজার শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন বার্তা ছড়িয়ে পড়ে। পুরনো বছর যেমনই কাটুক, নতুন বছর যেন ভাল কাটে সেই কামনা থাকে সবার।
নতুন বছরে, নতুন করে আশায় বুক বেঁধেছে বাংলাদেশ। নতুন স্বপ্ন দেখে শান্তি, স্বস্তি, কল্যাণ ও সমৃদ্ধির। বাংলাদেশ প্রত্যাশা করে, জঙ্গি, সন্ত্রাসবাদ ও মাদক সর্বোপরি ভয়াবহ হন্তারক ব্যাধি করোনা মুক্ত হবে সমাজ। বিনাশ হবে অগণতান্ত্রিক অপশক্তি, জঙ্গীবাদ, ধর্মান্ধতা, সাম্প্রদায়িকতা ও অপরাজনীতি। দেশবাসী প্রত্যাশা করে, সম্প্রীতি ও সমঝোতার সংস্কৃতি রচনায় রাজনৈতিক দলগুলো অগ্রসর হবে। নিম্ন মধ্য আয়ের দেশ থেকে মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হওয়ার ক্ষেত্রে সম্মিলিতভাবে সবাই কাজ করবে। ধ্বংসাত্মক রাজনীতি যেন আর মাথাচাড়া দিতে না পারে, সে বিষয়ে সকলেই সজাগ থাকবে। জীবনের নিরাপত্তা, সহনীয় দ্রব্যমূল্য এবং রাজনৈতিক স্থিতিশীলতাকে আরও এগিয়ে নিতে সবাই মিলে কাজ শুরু হোক- এটাই নববর্ষের প্রত্যাশা। দেশকে শান্তি ও সমৃদ্ধির পথে নিয়ে যেতে আইনের শাসনের ভিত আরও মজবুত হোক। বাড়ুক গড় আয়ু ও আয়। করোনার কারণে গত দু’বছর ব্যাহত হলেও এবার শিক্ষা-দীক্ষায় ঘটুক আরও বিস্তার। স্বাধীনতার মূল্যবোধ থাকুক অক্ষুণœ ও অটুট। জঙ্গিবাদ নির্মূল হোক দেশ থেকে। সাম্প্রদায়িক শক্তির বিনাশ ঘটুক।
নববর্ষের এই শুভলগ্নে সারাদেশের মানুষ সমবেত আনন্দ আয়োজনে উৎফুল্ল মনে নানা অনুষ্ঠানের মাধ্যমে স্বাগত জানায় নববর্ষকে। প্রার্থনা করে সব বাধাবিঘ্ন কেটে গিয়ে দেশে ও বিশ্বে উদিত হবে নতুন সূর্য। তারই আলোয় রঙিন হয়ে উঠুক সব। ২০২২ সালে উন্মোচিত হোক সম্ভাবনার নতুন দিগন্ত। বঙ্গবন্ধুকন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাত ধরে এবার কেবলই সামনে এগিয়ে যাওয়ার পালা। জয় হোক বাঙালি জাতির; জয় হোক বাংলাদেশের।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More