কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে যুবককে কুপিয়ে হত্যা : আটক ২

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি: কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে টাকা-পয়সা লেনদেনের ঘটনায় সৃষ্ট দ্বন্দের জেরে তৌকির হোসেন (২৫) নামে এক মোবাইল সার্ভিসিং মিস্ত্রি যুবককে কুপিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। শনিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় উপজেলার কয়া আবাসন এলাকায় সংঘটিত এই হত্যাকান্ডে জড়িত সন্দেহে ২ জনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে পুলিশ। নিহত তৌকির (২৫) কয়া আবাসনের মালিথাপাড়ার বাবলু মালিথার ছেলে। আটক দু’জন হলেন উপজেলার উত্তর কয়া কামারপাড়া গ্রামের বাসিন্দা আজবাহার আলীর ছেলে বিল্লু হোসেন (২০) এবং বিল্লুর বোন কয়া আবাসন প্রকল্পের বাসিন্দা মধু মিয়ার স্ত্রী যুথী খাতুন (২৩)।
ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী নিহতের চাচাতো ভাই শরিফুল ইসলাম জানান, কয়েকদিন পূর্বে উত্তর কয়া আবাসনের আজবাহারের ছেলে বিপ্লব ওরফে বিল্লু (২০) তৌকিরের কাছে মোবাইল মেরামত করতে দেন। তৌকির মোবাইল মেরামত করে তাকে ফেরত দিলে বিল্লু মোবাইল ফেরতের বিষয়টি অস্বীকার করেন। এ ঘটনা নিয়ে তাদের মধ্যে বেশ কয়েকদিন যাবত গন্ডগোল চলছিলো। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে শনিবার মাগরিবের নামাজের পর তৌকিরের বাড়িতে এসে মোবাইল ফেরত চান বিল্লু ও তার বোন যুথি খাতুন। এ সময় উভয়ের মধ্যে কথাকাটাকাটি শুরু হয়। এক পর্যায়ে বিল্লু বটি দিয়ে কুপিয়ে তৌকিরকে মারাত্মক জখম করেন। গুরুতর আহতাবস্থায় তাকে উদ্ধার করে কুমারখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে কুমারখালী থানার অফিসার ইনচার্জ কামরুজ্জামান তালুকদার বলেন, মোবাইল অথবা তার বদলে টাকা আদায়কে কেন্দ্র করে তৌকির এবং বিল্লুর মধ্যে দ্বন্দ্ব সৃষ্টি হয়। তারই এক পর্যায়ে ঝগড়া মারামারির মধ্যে ধারালো অস্ত্রের আঘাতে তৌকিরকে গুরুতর রক্তাক্ত জখম করে। তৌকির মারা যায়। সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে নিহতের লাশ উদ্ধার এবং এঘটনায় জড়িত সন্দেহের দুইজনকে আটক করেছে পুলিশ।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More