শিক্ষার মানোন্নয়নে সরকার ব্যাপক কর্মসূচি গ্রহণ করেছে

দামুড়হুদার কুড়ুলগাছিতে মেধাবী ছাত্রীদের মাঝে বাইসাইকেল প্রদানকালে এমপি টগর

কুড়ুলগাছি প্রতিনিধি: দামুড়হুদা উপজেলার আব কাইজার চ-িপুর নিম্নমাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ১০ মেধাবী ছাত্রীকে বাইসাইকেল ও কুড়–লগাছি ইউনিয়ন উপ-স্বাস্থ্য কেন্দ্রসহ প্রতিটি কমিউনিটি ক্লিনিকে মেডিকেল অক্সিজেন সিলিন্ডার বিতরণ করা হয়েছে। গতকাল সোমবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে উপজেলার কুড়ুলগাছি ইউনিয়ন পরিষদের উদ্যোগে ইউনিয়ন পরিষদ চত্বর থেকে এসব বিতরণ করা হয়। অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি ছিলেন চুয়াডাঙ্গা-২ আসনের এমপি হাজি মো. আলী আজগার টগর। প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ সময় তিনি বলেন, শিক্ষার মানোন্নয়নে সরকার ব্যাপক কর্মসূচি গ্রহণ করেছে। শেখ হাসিনার সরকার শিক্ষাবান্ধব সরকার। এছাড়াও বাল্যবিয়ে বন্ধে সরকার বিভিন্ন প্রোগ্রাম, প্রকল্প ও কার্যক্রম গ্রহণ ও বাস্তবায়নের কাজ করে যাচ্ছে। এর ধারাবাহিকতায় বাল্যবিয়ে কমে আসবে।

তিনি বলেন, বাল্যবিয়ে রোধে সবচেয়ে বেশি কার্যকরী ভূমিকা পালন করবে সচেতনতা ও শিক্ষা। শিক্ষিত নারীই পারেন সমাজের সকল অনিয়মের বিরুদ্ধে সোচ্চার হতে। এখন সময় এসেছে নারীদের নিজেদের অধিকার বুঝে নেয়ার।

কিছুটা আবেগের সুরে আব কাইজার চ-িপুর নিম্নমাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৬ষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রী আরিফা খাতুন (১৩) বলে আমার বাড়ি স্কুল হতে প্রায় তিন কিলোমিটার দূরে আমার যাতায়াতের খুবই অসুবিধা হয়। দিনের শুরুতে বাবা কাজে যাওয়ার আগে হাতে ২০ টাকা দিয়ে কাজে চলে যেতেন। সেই টাকা দিয়ে ভ্যানে করে স্কুলে যেতাম। যেদিন বাবা টাকা দিতে পারতেন না স্কুল দূরে হওয়ায় সেদিন আর স্কুলে যাওয়া হতো না। তখন খুব খারাপ লাগতো। সে বলে-বাবা কামলা খাটে কোনোরকমে সংসার চালান। তারপর আবার আমার পড়ালেখার খরচ। তাই সংসার চালাতে বাবা হাঁপিয়ে উঠতেন মাঝে মধ্যে। বাবার মলিন মুখ দেখে আমিও বাবার সাথে পড়াশুনার পাশাপাশি অন্যের জমিতে কৃষিকাজ করি। স্কুল যাওয়ার জন্য সাইকেল কিনার কথা মনে আসলেও তা ভাবিনি কখনো। কিন্তু শিক্ষাবান্ধব সরকারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা স্কুল যাওয়ার জন্য আমাদের সাইকেল দিয়েছেন। এখন স্কুল যেতে আর কোনো সমস্যা নেই। সে বলে, প্রধানমন্ত্রী সাইকেল দিছে, স্কুলতো যাইতে আমাগরে আর সমস্যা হবে না। প্রশান্তির সুরে কথাগুলো জানায় আরিফা খাতুন।

আর এক ছাত্রী রুবাইদা খাতুন বলে সাইকেল পাওয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও চুয়াডাঙ্গা-২ আসনের এমপি হাজি মো. আলী আজগার টগরকে কৃতজ্ঞতা জানায় সে। মেয়ের সঙ্গে সাইকেল নিতে এসেছিলেন মা রুবিনা খাতুন। মেয়ের সাইকেল পাওয়ায় রুবিনা  জানান, পারিবারিকভাবে অসচ্ছল হওয়ায় মেয়ের সাইকেলের স্বপ্ন অধরা ছিলো এতোদিন। মেয়ের স্বপ্ন পূরণ হওয়ায় এখন আমিও খুব খুশি।

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন দামুড়হুদা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলি মুনছুর বাবু, দর্শনা থানার অফিসার ইনচার্জ এএইচএম লুৎফুল কবীর, কুড়–লগাছি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. কামাল উদ্দীন, কুড়–লগাছি ইউনিয়ন আ.লীগের সভাপতি হাবিবুল্লাহ বাহার, সাধারণ সম্পাদক সরোয়ার হোসেন, ভাষাসৈনিক আবু কাইজার নিম্নমাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি আবু হেনা মোস্তাফা, আব্দুস সালাম ভুট্টু, দর্শনা কলেজ ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আলী আবরার অপু, কুড়–লগাছি ইউপি সচিব শাহাবুবর রহমান, ইউপি সদস্য আবু ছিদ্দিক, দেলোয়ার হোসেন বিপু, ফরহাদ শাহ, নাজমা খাতুন, হারুন অর রশিদ, আহসান কবীর ঝন্টু, তোফায়েল আহম্মদ লিটন, জিল্লুর রহমান, আজাহার আলী, আশরাফুল আলম, আ.লীগ নেতা আসাদুল হক, পিয়ার আলী।

জানা গেছে, কুড়–লগাছি ইউনিয়ন পরিষদের আয়োজনে এলজিএসপি প্রকল্পের আওতায় এ বাইসাইকেল ও মেডিকেল অক্সিজেন সিলিন্ডার বিতরণ করা হয়। উল্লেখ্য, বিদ্যালয়ের অধিকাংশ ছাত্র-ছাত্রী তাদের বাড়ি থেকে বাইসাইকেলে স্কুলে যাতায়াত করে।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More